দেশের সময়ওযেবডেস্কঃ ১৮৬১ সালের আজকের দিনে জন্মগ্রহণ করেছিলেন কাদম্বিনী। প্রথম নারী হিসেবে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি হয়েছিলেন ১৮৮৪ সালে। ১৯ শতকের নিরিখে যা অভূতপূর্ব। পরবর্তীকালে ভারতে মহিলা চিকিৎসকদের জন্যে এক অনুপ্রেরণার রাস্তা তৈরি করেন।

এশিয়ার প্রথম নারী চিকিৎসক কাদম্বিনী গঙ্গোপাধ্যায়কে শ্রদ্ধায় স্মরণ করল গুগল। আজ, রবিবার কাদম্বিনী গঙ্গোপাধ্যায়র ১৬০তম জন্মবার্ষিকী। বাঙালির তথা দেশের গর্ব কাদম্বিনীকে সম্মান জানিয়েছে বিশ্বের টেক জায়েন্ট গুগল। তাঁকে গ্রাফিক্সের মাধ্যমে ‘‌ডুডলে’‌ ফুটিয়ে তুলেছে সংস্থা।

বিহারের ভাগলপুরে জন্ম কাদম্বিনীর। বাবা ব্রাহ্ম সংস্কারক ব্রজকিশোর বসু ছিলেন ভাগলপুর স্কুলের প্রধান শিক্ষক। সেই সময়ের বাঙালি সমাজ কাদম্বিনীর লেখাপড়া মেনে নিতে পারেনি। বেথুন কলেজ থেকে প্রথম মহিলা হিসেবে স্নাতক হন। তারপর ডাক্তারি পড়ার সিদ্ধান্ত নেন। ইউরোপিয়ান মেডিসিন প্রয়োগের অনুশীলন শুরু করেন ১৮৮৬ সালে। পিসতুতো দাদা মনমোহনের হাত ধরে হিন্দু মহিলা বিদ্যালয়ে লেখাপড়া শুরু করেন। পরাধীন ভারতে সফল মহিলা হওয়ার কারণে একাধিক বাধার মুখে পড়তে হয় তাঁকে। সেই বাধা পার করে নিজেকে চিকিৎসক হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত করে তোলেন।

১৮৯২ সালে কাদম্বিনীদেবী আমেরিকায় যান। সেখানে তিনি ডাবলিন, গ্লাসগ্লো ও এডিনবরায় প্রশিক্ষণ নেন। এরপর দেশে ফিরে স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ হিসেবে কাজ শুরু করেন। ১৯২৩ সালের ৩ অক্টোবর নিজের মৃত্যুর আগে পর্যন্ত তিনি মানুষের সেবা করেছেন।কাদম্বিনীর এই ডুডলটি তৈরি করেছে বেঙ্গালুরুর বাঙালি গ্রাফিক্স শিল্পী অদ্রিজা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.