WB HS Toppers 2024প্রকাশিত উচ্চ মাধ্যমিকের ফল, ফার্স্ট ‘বইপোকা’ অভীক, প্রথম দশে কারা? রইল মেধাতালিকা

0
183

দেশের সময় কলকাতা প্রকাশিত এ বছরের উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফল। বুধবার দুপুর ১টায় সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে ঘোষণা করা হল পরীক্ষার রেজ়াল্ট। ফল ঘোষণা করলেন উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি চিরঞ্জীব ভট্টাচার্য।

এবারের উচ্চমাধ্যমিকেও জেলা এগিয়ে। পাশের হারে শীর্ষেই পূর্ব মেদিনীপুর, পাঁচ নম্বরে কলকাতা। উচ্চমাধ্যমিকে প্রথম অভীক দাস আলিপুরদুয়ারের ছেলে। ৪৯৬ নম্বর পেয়েছেন অভীক। আলিপুরদুয়ারের ম্যাক উইলিয়ামস উচ্চ বিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র অভীক মাধ্যমিকে চতুর্থ হয়েছিলেন। বরাবরই স্কুলে প্রথম স্থানেই থেকেছেন। উচ্চ মাধ্যমিকেও প্রথম দশে থাকাই লক্ষ্য ছিল অভীকের। তাই পরিশ্রমও করেছেন। আত্মবিশ্বাস ছিল কানায় কানায়।

বিজ্ঞান নিয়েই পড়তে চান উচ্চ মাধ্যমিকে প্রথম আলিপুরদুয়ারের অভীক দাস। তাঁর স্বপ্ন সৌরপদার্থবিজ্ঞানী হওয়ার। গবেষণাকেই লক্ষ্য হিসেবে বেছে নিয়েছেন অভীক। দ্বিতীয় নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের সৌম্যদীপ সাহা আবার গতানুগতিক ডাক্তারি-ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের পথে চলতে চান না। তাঁর পছন্দের বিষয় স্ট্যাটিস্টিক্স।

অভীক বলছেন, “সারাদিনই পড়াশোনা করেছি। প্রথম দশ কেন প্রথম পাঁচে থাকবই ভেবেছিলাম। তাই হয়েছে। প্রথম হতে পেরে আমি উচ্ছ্বসিত।” সময় ধরে পড়েছেন অভীক। মুখস্থ বিদ্যার চেয়ে বিষয়ের গভীরে গিয়ে কনসেপ্ট ধরে পড়াই পছন্দ করেন আলিপুরদুয়ারের মেধাবী ছাত্রটি। তিনি বলছেন, “বিষয়ের সারমর্ম ধরে পড়াই আসল। মুখস্থ বিদ্যা বেশিদিন টেকে না। কনসেপচুয়াল লার্নিংই সাফল্যের চাবিকাঠি।” ভবিষ্যতে অ্যাস্ট্রোফিজিক্স নিয়ে পড়তে চান অভীক। গবেষণা করে বিজ্ঞানী হওয়াই তাঁর ভবিষ্যতের লক্ষ্য।

গতানুগতিক ডাক্তারি বা ইঞ্জিনিয়ারিংকে পেশা হিসেবে বেছে নিতে চান না নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের সৌম্যদীপ সাহা। এবারে উচ্চ মাধ্যমিকে দ্বিতীয় হয়েছেন সৌম্যদীপ। তাঁর প্রাপ্ত নম্বর ৪৯৫। নরেন্দ্রপুরের মেধাবী ছাত্রটি স্ট্যাটিস্টিক্স নিয়ে পড়াশোনা করতেই আগ্রহী।  

ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিস্টিকাল ইনস্টিটিউট (আইএসআই)-তে স্ট্যাটিস্টিক্সে অনার্স নিয়ে পড়াশোনা শুরু করতে চান সৌম্যদীপ। তারপর গবেষণা তো আছেই। সামনে লম্বা পথ। পড়াশোনাকেই মূল মন্ত্র করে এগিয়ে যেতে চান। কারণ সৌম্যদীপের কাছে পড়াশোনা বোঝা নয়, ভালবাসা।

লক্ষ্যের পথে গড়পড়তা ইঁদুর দৌড়ে সামিল হওয়া পছন্দ নয় নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের মেধাবী ছাত্রটির। পছন্দের বিষয়টি তাঁর এগিয়ে যাওয়ার অনুপ্রেরণা, কোনওভাবেই তা বোঝা বা বাধ্যবাধকতা নয়। কারণ পড়াশোনাকে বোঝা নয়, বাহন করেছেন সৌম্যদীপ। পড়াশোনাই সেই মাধ্যম যা তাঁকে লক্ষ্যে এগিয়ে নিয়ে যাবে বহুদূর।

এ বছর পরীক্ষা শুরু হয়েছিল গত ১৬ ফেব্রুয়ারি। শেষ হয় ২৯ ফেব্রুয়ারি। অর্থাৎ পরীক্ষা শেষের ৬৯ দিনের মাথায় ঘোষণা করা হল ফলাফল। ৬০টি বিষয়ে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছিল। যার মধ্যে ১৫টি ভাষার পরীক্ষা। চলতি বছরে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৭,৬৪,৪৪৮ জন। তার মধ্যে ‘রেগুলার ভিত্তিতে’ মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৭,৫৫,৩২৪ জন। মোট পরীক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছেন ৬,৭৯,৭৮৪। পাশের হার ৯০ শতাংশ। জেলাভিত্তিক পাশের হারের নিরিখে শীর্ষ স্থানে রয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর, পাশের হার ৯৯.৭৭ শতাংশ। কলকাতা রয়েছে পঞ্চম স্থানে।

এ বছর উচ্চ মাধ্যমিকে ১৫টি জেলা থেকে প্রথম দশে রয়েছেন ৫৮ জন। ৪৯৬ নম্বর পেয়ে প্রথম হয়েছেন অভীক দাস। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন সাম্যদীপ সাহা। তাঁর প্রাপ্ত নম্বর ৪৯৫। তৃতীয় স্থানে রয়েছেন অভিষেক গুপ্ত। প্রাপ্ত নম্বর ৪৯৪। এ ছাড়াও প্রথম দশে রাজ্যের কোন স্কুলের কোন পড়ুয়া রয়েছেন, তা জানাতে এক নজরে দেখে নিন  মেধাতালিকা—

প্রথম স্থান, প্রাপ্ত নম্বর: ৪৯৬

১) অভীক দাস, ম্যাকউইলিয়াম উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল (আলিপুরদুয়ার)।

দ্বিতীয় স্থান, প্রাপ্ত নম্বর: ৪৯৫
১) সৌম্যদীপ সাহা। নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন।

তৃতীয় স্থান, প্রাপ্ত নম্বর: ৪৯৪
১) অভিষেক গুপ্ত। রামকৃষ্ণ মিশন বিবেকানন্দ বিদ্যামন্দির, মালদা।

চতুর্থ স্থান, প্রাপ্ত নম্বর: ৪৯৩
১) প্রতীচী রায় তালুকদার, সুনীতি একাডেমি, কোচবিহার।

২) শ্রেয়া ঘোষ, কৃষ্ণভাবিনী নারী শিক্ষা মন্দির, চন্দননগর

পঞ্চম স্থান, প্রাপ্ত নম্বর: ৪৯২
১) সায়ন্তন মাইতি, কন্টাই হাই স্কুল, কাঁথি।
২) সুস্বাতী কুন্ডু, বাঁকুড়া মিশন গার্লস হাই স্কুল, বাঁকুড়া।
৩) সুপ্তোত্থিতা সরকার, বুলবুলচন্ডী গিরিজা সুন্দরী বিদ্যামন্দির, মালদহ।

৪) সৌনক কর, স্কটিশ চার্চ কলেজিয়েট স্কুল, কলকাতা।
৫) সানন্দা রায়, নবনালন্দা শান্তিনিকেতন উচ্চ বিদ্যালয়, বীরভূম।
৬) অঙ্কিত পাল, বেথুয়াডহরি হাই স্কুল, বাঁকুড়া।
৭) অর্ণব কর্মকার, রামকৃষ্ণ মিশন বিবেকানন্দ বিদ্যামন্দির, মালদহ।

ষষ্ঠ স্থান, প্রাপ্ত নম্বর: ৪৯১
১) রুদ্র দত্ত, মাহেশ শ্রী রামকৃষ্ণ আশ্রম বিদ্যালয়, হুগলি।
২) নিলয় চট্টোপাধ্যায়, নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন বিদ্যালয়, দক্ষিণ ২৪ পরগনা।
৩) শুভদীপ সিনহা মহাপাত্র, বাঁকুড়া বঙ্গ বিদ্যালয়।
৪) মনস্বী চন্দ, সুনীতি অ্যাকাডেমি, কোচবিহার।
৪) অভ্রকিশোর ভট্টাচার্য, হুগলি কলেজিয়েট স্কুল।
৫) সৌম্যজিৎ নন্দী, রামপুরহাট জীতেন্দ্রলাল বিদ্যাভবন, বীরভূম।

৬) আফরিন মণ্ডল, মেমারি ভি এস ইনস্টিটিউশন, পূর্ব বর্ধমান।
৭) অনিমেষ লায়েক, ইন্দপুর গোয়েঙ্কা হাই স্কুল, বাঁকুড়া।

সপ্তম স্থান, প্রাপ্ত নম্বর: ৪৯০
১) সৌমিক ধবল, বাঁকুড়া গভর্নমেন্ট জেলা স্কুল।
২) ঋতব্রত দাস, হুগলি কলেজিয়েট স্কুল।
৩) বিদিশা সন্নিগ্রাহী, সিমলি পাল মদন মোহন হাই স্কুল, বাঁকুড়া।
৪) অঙ্কিতা সরকার, রায়গঞ্জ করোনেশান হাই স্কুল, উত্তর দিনাজপুর।
৫) মহম্মদ শাহিদ, আরামবাগ হাই স্কুল, হুগলি।

অষ্টম স্থান, প্রাপ্ত নম্বর: ৪৮৯
১) অর্ঘ্যদীপ দত্ত, হিন্দু স্কুল, কলকাতা।
২) অস্মিত কুমার মুখোপাধ্যায়, মাহেশ শ্রীরামকৃষ্ণ আশ্রম বিদ্যালয়, হুগলি।

৩) সোমশুভ্র কর্মকার, আরামবাগ হাই স্কুল, হুগলি।
৪) রুমা কোনার, ভেদুয়াশোল হাই স্কুল, বাঁকুড়া।
৫) কৌশিক ঘোষ, গোয়ালযান রিফিউজি হাই স্কুল, মুর্শিদাবাদ।
৬) সিঞ্চন দত্ত, বিবর্দ সচ্চিদানন্দ বিদ্যাপীঠ, বাঁকুড়া।

নবম স্থান, প্রাপ্ত নম্বর: ৪৮৮
১) অন্বেষা দত্ত, আলিপুরদুয়ার গার্লস হাই স্কুল।
২) পৃথা দত্ত, চন্দননগর বঙ্গ বিদ্যালয়য়, হুগলি।
৩) প্রীতম্বর বর্মণ, তরঙ্গপুর এন কে হাই স্কুল, উত্তর দিনাজপুর।
৪) অহন চক্রবর্তী, রামকৃষ্ণ মিশন বয়েজ় হোম হাই স্কুল, রহড়া, উত্তর ২৪ পরগনা।
৫) কুশল ঘোষ, তেহট্ট হাই স্কুল, নদিয়া।
৬) অদ্বিতীয় বন্দ্যোপাধ্যায়, নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন বিদ্যালয়, দক্ষিণ ২৪ পরগনা।
৭) অর্পণ গোস্বামী, বাঁকুড়া বঙ্গ বিদ্যালয়।
8) অর্ক সাহা, নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন বিদ্যালয়, দক্ষিণ ২৪ পরগনা।

৫) বৃষ্টি পাল, চুঁচুড়া বালিকা বাণী মন্দির, হুগলি।
৬) বিতান আহমেদ, সরিষা রামকৃষ্ণ মিশন শিক্ষামন্দির, দক্ষিণ ২৪ পরগনা।
৭) উজান চক্রবর্তী, পাঠ ভবন, কলকাতা।

দশম স্থান, প্রাপ্ত নম্বর: ৪৮৭
১) সৃজনী ঘোষ, কৃষ্ণভাবিনী নারী শিক্ষা মন্দির, হুগলি।
২) বৃষ্টি দত্ত, বেগমপুর হাই স্কুল, হুগলি।
৩) তন্নিষ্ঠা দাস, পাথফাইন্ডার এইচএস পাবলিক স্কুল, যোধপুর পার্ক, কলকাতা।
৪) সোহা ঘোষ, কৃষ্ণভাবিনী নারী শিক্ষা মন্দির, হুগলি।
৫) অন্তরা শেঠ, মেঝিয়ারি এস সি এস হাই স্কুল, পূর্ব বর্ধমান।
৬) ইন্দ্রাণী সেন, পারুলডাঙ্গা নসরতপুর হাই স্কুল, পূর্ব বর্ধমান।
৭) সুকৃতি মণ্ডল, সাঁকরাইল অভয় চরণ হাই স্কুল, হাওড়া।
৮) দেবপ্রিয়া বাড়, এগরা ঝাটুলাল হাই স্কুল, পূর্ব মেদিনীপুর।

৯) শতপর্ণা মিল, টাকি হাউজ মাল্টিপারপাস গার্লস হাই স্কুল, কলকাতা।
১০) সোহম কোনার, মন্টেশ্বর সাগরবালা হাই স্কুল, পূর্ব বর্ধমান।
১১) সোহম মুখোপাধ্যায়, নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন বিদ্যালয়, দক্ষিণ ২৪ পরগনা।
১২) অনীশ ঘড়াই, হলদিয়া গভর্নমেন্ট স্পনসরড বিবেকানন্দ বিদ্যাভবন, পূর্ব মেদিনীপুর।
১৩) শুভজিৎ ঘোষ, নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন বিদ্যালয়, দক্ষিণ ২৪ পরগনা।
১৪) তৌফিক মামুদ, রহিমপুর নবগ্রাম হাই স্কুল, হুগলি।
১৫) সংসপ্তক আদক, হলদিয়া হাই স্কুল, পূর্ব মেদিনীপুর।
১৬) অঙ্কিতা ঘোষ, কোচবিহার উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়।

Previous articleDesher RannaGhor: Mochar Paturiভেটকি কিংবা ইলিশ নয়, নিরামিষাশী বন্ধুর জন্যে রাঁধতে পারেন মোচার পাতুরি, রইল রেসিপি
Next articleRABINDRA JAYANTI নৃত্য,গান , ছবি ও কবিতায় বনগাঁয় কবিগুরুকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন দেখুন ভিডিও

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here