দেশের সময়ঃ বনগাঁ পুরসভার আস্থা ভোটকে কেন্দ্র করে একের পর এক ঘটনা ঘটছে। অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগে সরগরম হয়ে উঠেছে বনগাঁর রাজনীতি। এই পর্যায়ে নবতম সংযোজন বনগাঁর এক বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে তৃণমূলের এক মহিলা কাউন্সিলরের শ্লীলতাহানির অভিযোগ দায়ের।

পুরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর দীপালি বিশ্বাস বনগাঁ থানায় এই অভিযোগ করেছেন। তাঁর অভিযোগ, তিনি ও আরও দুজন মহিলা কাউন্সিলর মৌসুমী চক্রবর্তী ও টুম্পা রায়কে ১৬ জুলাই বিজেপি নেতা দেবদাস মণ্ডল ও আরও কয়েকজন বিজেপি কর্মী প্রকাশ্যে শ্লীলতাহানি করে।

অভিযোগ অস্বিকার করেছেন দেবদাস মন্ডল।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বনগাঁ পুরসভার চেয়ারম্যান শঙ্কর আঢ্যর বিরুদ্ধে অনাস্থা আনার পর ১৬ জুলাই মঙ্গলবার আস্থা ভোটদানকে কেন্দ্র করে চরম বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয় ৷ ব্যাপক পুলিশি ব্যবস্থা থাকলেও পৌরসভার সামনে ভাঙচুর, বোমাবাজি লাঠি, পুলিশের পাল্টা লাঠিচার্জে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় এলাকা।

অভিযোগ সেই সময় তৃণমূল কাউন্সিলর দীপলি বিশ্বাসের শাড়ি ধরে টান দেওয়া হয়। তার সহযোগী দুই কাউন্সিলর মৌসুমী চক্রবর্তী ও টুম্পা রায়ের় চুড়িদার ও কাপড় ধরে টানাটানি করে ও ভয় দেখানো হয়। একই অভিযোগ করলেন দীপালির স্বামী নির্মলকুমার বিশ্বাসও। ওইদিন রাতেই দেবদাস মন্ডল এর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি।

সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে বিজেপি নেতা দেবদাস মন্ডল বলেন, ওদিন কবিতা গেস্ট হাউসের সামনে পুলিশ, সাংবাদিক সবাই ছিলেন। কিছু হলেতো সবাই দেখতে পেতেন। তৃণমূল আর কত এমন মিথ্যা কেস করবে। তৃণমূল দল আর শংকর আঢ্য আর কত নিচে নামবেন প্রশ্ন করেন তিনি৷ পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here