তাপস পালের অকাল মৃত্যুর অস্বস্তি ঢাকতে তাঁর স্ত্রীকে রাজনীতিতে টানতে চায় তৃণমূল

0
500
দেশের সময়, প্রতিবেদনঃ– তাপস পালের আকস্মিক মৃত্যু নিয়ে তৃণমূল সুপ্রিমো যতোই কেন্দ্রের প্রতিহাংসা মূলক রাজনীতিকে অভিযোগের কাঠগড়ায় দাঁড় করাবার চেষ্টা করুণ না কেন তাপস পালের সঙ্গে তৃণমূলের সম্পর্ক যে অনেকটাই ক্ষীণ হয়ে এসেছিল তা মানছে তৃণমূলেরই একাংশ।

যে ভাবে ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে তাকে ছেঁটে ফেলা হয়েছিল ও তার কুকথার ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পর দল তার সঙ্গে দুরত্ব তৈরি করেছিল তা যে তাপসকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে তুলেছিল সে কথা তাপস পালের স্ত্রী নন্দিনী বার বার বলেছেন।নন্দিনী এমনকী এই অভিযোগও একসময় সংবাদ মাধ্যমের কাছে করেছিলেন যে তাপস পালকে ভুবনেশ্বরে গিয়ে আইনি লড়ই একাই লড়তে হয়েছিল।

এইসব কারণে দলের প্রতি যে তাপসের ক্ষোভ ও হতাশা তৈরি হয়েছিল সে কথাও প্রকাশ্যে এসেছে একাধিকবার।

তাপসের মৃত্যুর পর তার অভিনয় জীবনের প্রতি ভালবাসার টানে একদল মানুষ আবার সেন্টিমেন্টাল হয়ে পড়ছেন।কেউ কেউ বলছেন রাজনীতিই এক দক্ষ অভিনেতার জীবন কেড়ে নিল অকালে।এমত পরিস্থিততে অভিযোগের আঙুল যে রাজ্যের শাসক দলের দিকেই উঠতে যাচ্ছে তা টের পেয়ে আসরে নেমে পড়েছেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তিনি একেবারে চিরাচরিত প্রথা ভেঙে মৃত দেহকে সামনে রেখে তাপস পালের মৃত্যুর জন্য সেন্ট্রাল এজেন্সিকে দুষেছেন৷

শুধু তাই নয় এই সূত্রে সুলতান সিং ও প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রীর মৃত্যুর কথাও টেনে এনেছেন।লক্ষ্য একটাই মানুষের আবেগে ধাক্কা দিয়ে সহানুভূতি টেনে আনা।তাপস পালের প্রতি তৃণমূল যে সুবিচার করে নি তা টের পেয়ে মমতা তাঁর দল এখন জোর কদমে ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমেছে।পুরসভা ভোট ও আগামী ২০২১ এর বিধানসভা ভোটে যে তাপস পালের মৃত্যুর আবেগকে ব্যবহার করা সম্ভব তা টের পেয়েই তৃণমূল এখন তাপস পালের পরিবারকে পাশে পেতে মরিয়া।শোনা যাচ্ছে এবার তাপস পালের স্ত্রীকে রাজনীতির ময়দানে নামাতে পারে তৃণমূল।

সে বিষয়ে নাকি কথা বার্তাও শুরু হয়ে গেছে।তাপস পালের স্ত্রী মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তাপসের মৃত্যুর পর পরই অনুযোগ করেছিলেন বলে শোনা যাচ্ছে,যে তাপসকে বাঁচানোর লড়াইটা তাকে যে ভাবে একা একা করতে হয়েছে তাতে তিনি আহত ও দুখিঃত বোধ করছেন।দলের কাছে আর একটু সাহায্য ও সাহচর্য তিনি প্রত্যাশা করেছিলেন বলে অনুযোগ করেন তাপসের স্ত্রী নন্দিনী পাল।

মুখ্যমন্ত্রী নাকি এর পর তাকে আশ্বস্ত করে বলেছেন যা হবার তা হয়েছে ভুলবোঝাবুঝির অবসান করে তাপসের অসমাপ্ত কাজ তাকে করার জন্য প্রস্তুত থাকতে বলেছেন।এর পরেই তৃণমূলের অন্দরে তুমুল আলোচনা এবার তাপসের স্ত্রী নন্দিনী সরাসরি রাজনীতিতে আসছেন বলে।

তৃণমূলের কেউ কেউ অবশ্য এটাকে তৃণমূলের স্বাভাবিক রীতি বলেই মনে করছেন।কারণ এর আগেও এই দলে তেমনটাই হয়েছে।সুলতান সিং এর মৃত্যুর পর তার স্ত্রীকেই উলুবেরিয়া লোকসভা উপনির্বাচনে প্রার্থী করা হয়েছিল এবং জিতিয়ে আনা হয়েছিল।তাপস পালের স্রীর ক্ষেত্রেও তেমন হওয়াটা অস্বাবিক কিছি নয়।তবে এক্ষেত্রে একটাই ফারাক তাপস পাল দলের একাংশের কাছে ব্রাত্য হয়ে গেছিলেন।দল তাকে অনাদরে অবহেলায় দুড়ে ঠেলে দিয়েছিল।অভিযোগ সেই কারণেই মানসিক ও শারীরিক বিপর্যয়ের শিকার হয়েছিলেন তাপস।সেই ক্ষোভ ও হতাশা যেন তার পরিবারকে গ্রাস না করে সেই কারণেই সতর্ক হতে চায় তৃণমূল।

তাপস পালের মৃত্যু তৃণমূলকে কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে ফেলেছে সেই অস্বস্তি কাটাতেই এখন তার স্ত্রীকে সক্রিয় রাজনীতিতে যোগ দেওয়ানোর প্রযাস চলছে।রাজনীতিতে থেকে তাপস পাল তার সেলিব্রিটি ইমেজ একেবারে নষ্ট করে ফেলেছিলেন তাই রাজনীতির ময়দানেও তাকে আর সেভাবে ব্যবহারের আগ্রহ দেখায় নি তৃণমূল।

তবে আচমকা মরে গিয়ে তাপস পাল আবার তার অভিনয় জীবনের কদর পেতে শুরু করায় এবার তার স্ত্রীকে দিয়ে সেই আবেগকে দলীয় স্বার্থে ব্যবহার করতে মরিয়া তৃণমূল। তৃণমূলের অন্দরে তাই কেউ তাই মজা করে বলছেন জীবিত নায়কের চেয়ে মৃত নায়ক বেশী আকর্ষনীয়।এখন দেখার তাপসের স্রী কবে সক্রিয় রাজনীতিতে নাম লেখান।

Previous articleপুলকার দুর্ঘটনায় আহত ছাত্র ঋষভের লড়াই শেষ
Next articleMamata paying tribute on bhasa sahid diwas

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here