দেশের সময় কলকাতা : লোকসভা নির্বাচনের প্রথম তিন দফায় তাপপ্রবাহে পুড়েছে গোটা দেশ। 

তীব্র গরমের পর কিছুটা স্বস্তি, মুক্তি। বৃষ্টিতে শান্তি নেমেছিল। গত কয়েকদিন শহর কলকাতা সহ দুই বঙ্গের জেলায় জেলায় স্বস্তির পরিবেশ। তবে বৃষ্টি কমলে ফের দক্ষিণের জেলা গুলিতে গরম বাড়বে বলেই জানাচ্ছে হাওয়া অফিস।চলতি সপ্তাহ থেকে বদলাবে আবহাওয়া। সোমবার ।

একাধিক রাজ্যে বজ্রবিদ্য়ুৎ সহ ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাসই দিল মৌসম ভবন। আজ, সোমবার লোকসভা নির্বাচনের চতুর্থ দফার ভোটগ্রহণ। দেশজুড়ে মোট ৯৬টি আসনে ভোট গ্রহণ হবে। এরমধ্যেই আবহাওয়া নিয়ে স্বস্তির খবর। পূর্ব ও মধ্য় ভারতে আগামী ১৪ মে পর্যন্ত ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। দক্ষিণের উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে বৃষ্টি হতে পারে ১৬ মে অবধি।

সোমবার দক্ষিণবঙ্গের উপকূলের জেলাগুলিতে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সঙ্গে ৩০-৪০ কিমি ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুসারে, সোমবারও দক্ষিণবঙ্গের সব জেলাতেই ৩০-৪০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা বেগে হাওয়া সহ ঝড় বৃষ্টি চলবে।

আগামীকাল, মঙ্গলবারও হালকা বৃষ্টি চলবে দুই বঙ্গে। এরপর ১৫ মে অর্থাৎ বুধবার শুধু পশ্চিম মেদিনীপুর, পশ্চিম বর্ধমান, ঝাড়গ্রাম, মুর্শিদাবাদ, বীরভূমে ঝড় বৃষ্টি হতে পারে।  বাকি জেলাগুলিতে বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। আর বৃহস্পতিবার থেকে দক্ষিণবঙ্গের কোনও জায়গাতেই বৃষ্টির পূর্বাভাস পাওয়া যায়নি।

নতুন সপ্তাহে ফের আহাওয়ায় পরিবর্তন আসতে পারে। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, একটি পূর্ব-পশ্চিম অক্ষরেখা রাজস্থান থেকে অসম পর্যন্ত বিস্তৃত। এই অক্ষরেখা মধ্যপ্রদেশ ঝাড়খন্ড এবং গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর দিয়ে গিয়েছে। আরও একটি অক্ষরেখা বিহার থেকে ওড়িশা পর্যন্ত বিস্তৃত, যা ঝাড়খণ্ড ও গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর দিয়ে গিয়েছে। যার জেরেই সপ্তাহের মাঝামাঝি থেকে কমবে বৃষ্টি, বাড়বে তাপমাত্রা। শুক্রবারের মধ্যে তিন থেকে চার ডিগ্রি তাপমাত্রা বাড়তে পারে জেলাগুলিতে।

পূর্বাভাস অনুযায়ী, শহর কলকাতা ও সংলগ্ন এলাকার আকাশ আজ আংশিক মেঘলা থাকবে। সপ্তাহের প্রথম দিনে সন্ধের দিকে ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে। রবিবার কলকাতা সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩২.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের চেয়ে ৩.১ ডিগ্রি কম। সোমবার সকালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৬.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের চেয়ে ০.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস কম।

সোমবার উত্তরবঙ্গে দার্জিলিং, কালিম্পং সহ পার্বত্য এলাকায় হালকা ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি হতে পারে কোচবিহার আলিপুরদুয়ার ও জলপাইগুড়ি জেলায়। উত্তরবঙ্গেও মঙ্গলবার থেকে কমবে বৃষ্টির পরিমাণ। তবে দার্জিলিং এবং কালিম্পং সহ পার্বত্য এলাকায় আপাতত বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি চলবে।

মৌসম ভবনের তরফে পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে, উত্তর পাকিস্তানের উপরে একটি পশ্চিমী ঝঞ্ঝা তৈরি হয়েছে। অন্যদিকে, পশ্চিম উত্তর প্রদেশ ও দক্ষিণ রাজস্থানের উপরও একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়েছে। এর জেরেই আগামী কয়েকদিন ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

আজ, সোমবার জম্মু-কাশ্মীর থেকে শুরু করে লাদাখ, হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ডে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সঙ্গে বইবে ঝোড়ো হাওয়া। ১৪ তারিখ পর্যন্ত ঝড়বৃষ্টি সম্ভাবনা রয়েছে।

অন্যদিকে, বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে দিল্লি, পঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগঢ়, উত্তর প্রদেশ, মধ্য প্রদেশ, ছত্তীসগঢ়, গুজরাট, মহারাষ্ট্র ও গোয়াতেও। আগামী চারদিন অবধি আকাশের অবস্থা একই থাকবে।

বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝড়বৃষ্টি হবে অন্ধ্র প্রদেশ, ইয়ানম, তেলঙ্গানা, তামিলনাড়ু, পুদুচেরী, কড়াইকাল, কেরল, মাহে ও কর্নাটকে। উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে ভারী বৃষ্টিপাতও হতে পারে। উত্তর-পূর্বের রাজ্য়গুলিতে ১৫ মে পর্যন্ত ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। ১৬ মে থেকে বৃষ্টি আরও বাড়বে।

তবে তাপপ্রবাহ থেকে এখনই মুক্তি মিলছে না। ১৬ মে থেকে উত্তর-পশ্চিমের রাজ্যগুলিতে তাপপ্রবাহ শুরু হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here