দেশের সময় কলকাতা এক টুকরো কালো মেঘ দেখতে আকাশের দিকে চাতক পাখির মতো তাকিয়ে সবাই। তবে এই অপেক্ষার অবসান হতে চলেছে।

বর্ষা নিয়ে বড় আপডেট দিল মৌসম ভবন। আজই কেরলে প্রবেশ করতে পারে বর্ষা।

ঘূর্ণিঝড় রেমালের জেরে কমেছে তাপমাত্রা। তবে ভ্যাপসা গরমে গলদঘর্ম দশা জেলায় জেলায়। ফের কলকাতা
সহ দক্ষিণবঙ্গে আবহাওয়ার পরিবর্তন হবে। 

সদ্য কেটেছে রেমাল আতঙ্ক। এখনও নদী তীরবর্তী এলাকাগুলিকে ধ্বংসের ছাপ স্পষ্ট। এরই মাঝে ফের একবার রাজ্যজুড়ে বৃষ্টির পূর্বাভাস দিল আলিপুর হাওয়া অফিস। প্রায় দুমাস ধরে চলা লোকসভা ভোটের সপ্তম দফাতে বৃষ্টি হবে গোটা রাজ্যে। হাওয়া অফিস জানিয়েছে শনিবার থেকে শুরু হয়ে বৃষ্টি হবে মঙ্গলবার পর্যন্ত। অর্থাৎ দেশের রায় কোনদিকে তা নির্ধারণের দিনেও হবে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি। বিভিন্ন এলাকায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হবে। সঙ্গে ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হওয়ার হলুদ সতর্কতাও রয়েছে।

উত্তরের ৫ জেলায় রয়েছে কমলা সতর্কতা। দার্জিলিং, কালিম্পং, কোচবিহার আলিপুরদুয়ার এবং জলপাইগুড়িতে ভারী বৃষ্টি হবে। জুন মাসের ১০ তারিখের মধ্যে দক্ষিণবঙ্গে বর্ষা প্রবেশ করতে পারে। তবে তা নির্ভর করবে কেরলে বর্ষা ঠিক কবে আসবে তার দিকেই।

শেষ দফা ভোট থেকে গণনার দিন পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে।

আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, জুন মাসের প্রথম ৪ দিন দক্ষিণবঙ্গের সমস্ত জেলা জুড়ে বৃষ্টি হবে। দিনের বিভিন্ন সময়ে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি চলবে। সঙ্গে ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার এবং কোথাও কোথাও ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হওয়ার হলুদ সতর্কতা রয়েছে।

কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, বীরভূমে হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। শুক্রবার থেকে বিক্ষিপ্তভাবে দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টি শুরু হবে। আগামী পাঁচ দিন উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করেছে হাওয়া অফিস।

বুধবার মৌসম ভবনের তরফে পূর্বাভাসে জানানো হয়েছিল,২৪ ঘণ্টার মধ্যেই দক্ষিণ-পশ্চিমী মৌসুমী বায়ু প্রবেশ করতে পারে কেরলে।

এই মৌসুমী বায়ুর হাত ধরেই দেশে প্রবেশ করতে পারে বর্ষা। মৌসম ভবন জানিয়েছে, আজ, বৃহস্পতিবার কেরলে বর্ষার প্রবেশের অনুকূল পরিস্থিতি রয়েছে। সাধারণত ১ জুন কেরলে বর্ষা প্রবেশ করলেও, এবার দু-একদিন আগেই প্রবেশ করতে পারে বর্ষা। উত্তর-পূর্বের কিছু অংশেও সময়ের আগেই বর্ষার আগমন হতে পারে।

প্রসঙ্গত, কেরলে ইতিমধ্যেই বৃষ্টি হচ্ছে। বুধবার মৌসম ভবনের তরফে তিরুবনন্তপুরম, ইদুক্কি, ত্রিশূর জেলায় হলুদ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। কোল্লাম, পাথানামিত্তা, আলুপুজ়া, কোট্টায়াম ও এর্নাকুলামে কমলা সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এখানে ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here