হিয়া রায় দেশের সময়

অশোকনগর: শিলিগুড়িতে রামকৃষ্ণ মিশনের জমি জবরদখলকাণ্ডে মুখ খুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার অশোকনগরের সভা থেকে মমতা বলেন, “কোনও জায়গায় গন্ডগোল হয়েছে বা আশ্রমের উপর কোনও আক্রমণ হয়েছে আমার তো নলেজেই নেই। আমি এটাকে সমর্থন করি না। আমাদের কেউ নেই। যদি খুঁজে বের করতে পারেন আমি কথা দিচ্ছি আমাদের যা ব্যবস্থা নেওয়ার আমরা নেব।”

রবিবার গভীর শিলিগুড়ির সেবক রোডের পাশে শালুগাড়ায় রামকৃষ্ণ মিশনের ‘সেবক হাউস’-এ রাতে হামলা চালানোর অভিযোগ ওঠে জমি মাফিয়াদের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়।

এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আমার বাংলায় যদি কোথায় কোনও গন্ডগোল হয় আমার কাছে তো একটা ইনফরমেশন আসে। আমার কাছে তো কোনও ইনফরমেশন এল না। আমি তো জানতে পারলাম না। আমাকে একজন সাংবাদিক বলল, সে নাকি এনকোয়ারি করে দেখেছে এটা ওদের নিজেদের পারিবারিক ব্যাপার। অনেকেই জানেন, জমি দেন নানা ধর্মীয় কাজে। তারা কাজে লাগান। এটা এরকমই কোনও ব্যাপার। এরসঙ্গে রাজনীতির সঙ্গে কোনও সম্পর্ক নেই।”

‘জগন্নাথ নিজে মোদীর ভক্ত’, এই মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে গেরুয়া শিবিরের বিড়ম্বনা বাড়িয়েছেন ওডিশার পুরী কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সম্বিত পাত্র। আর এবার সম্বিতের সেই মন্তব্যকে ঘিরে নাম না করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিশানা করলেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বারাসত লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী কাকলী ঘোষ দস্তিদারের সমর্থনে অশোকনগর জনসভা থেকে মমতা বলেন, ‘জগন্নাথদেবও নাকি ওঁর ভক্ত! ভগবানের থেকেও বড়। ভগবানের থেকে বড় হতে হলে আপনি মন্দিরে থাকুন, আমরা পুজো করব। ফুলচন্দন দেব, তুলসী পাতা দেব, ভালো করে সাজাব।’

প্রসঙ্গত, পুরীর মন্দিরে পুজো দেওয়ার পর একটি সভা থেকে পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের রত্ন ভাণ্ডারের চাবির সন্ধান কেন মিলছে না, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন নরেন্দ্র মোদী। সম্বিত পাত্রের সমর্থনেই ভোটের প্রচারে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। বিশাল রোড-শো শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন সম্বিত পাত্র। সেই সময় তিনি বলেন, ‘লাখ লাখ মানুষ জড়ো হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রীকে দেখার জন্য, জগন্নাথদেব নিজে মোদীর ভক্ত, আর আমরা সকলেই মোদীর পরিবার।’

সম্বিতের সেই মন্তব্যকে ঘিরে ব্যাপক শোরগোল পড়ে যায়। মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয় তাঁর বক্তব্যের ভিডিয়ো। সোশ্যাল মিডিয়ায় বিবিধ মন্তব্যেও ধেয়ে আসতে থাকে। তীব্র বিতর্ক ও সমালোচনার মুখে পড়ে শেষ পর্যন্ত বিষয়টিতে ঢোঁক গিলতে হয় সম্বিত পাত্রকে। একটি ভিডিয়ো বার্তায় ক্ষমা চেয়ে বিজেপি প্রার্থী সম্বিত পাত্র বলেন, ‘আমার একটি মন্তব্যে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। নরেন্দ্র মোদীর রোড শোয়ের পর সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছিলাম আমি।

সেই সময় আমি বলতে চেয়েছিলাম প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী প্রভু জগন্নাথদেবের বড় ভক্ত। সেই সময় প্রবল গরম এবং মারাত্মক ভিড় ছিল। আমি সংবাদমাধ্যমের প্রশ্নের উত্তরে বারবারেই একই কথা বলছিলাম। তখনই অনিচ্ছাকৃতভাবে বলে ফেলি, যে মহাপ্রভু জগন্নাথদেব প্রধানমন্ত্রী মোদীর ভক্ত। কখনওই এটা সত্যি হতে পারে না। কোনও মানুষ সচেতনভাবে এই কথা বলতে পারে না। ভগবান মানুষের ভক্ত, এ কথা মুখেও আনা যায় না। আমি কখনওই ইচ্ছে করে তা বলতে চাইনি।’

সম্বিত আরও বলেন, ‘আমি জানি অনেকেই আমার এই কথায় বেদনাহত হয়েছেন। অনিচ্ছাকৃত ভুল তো ভগবানও ক্ষমা করে দেন। আমি মহাপ্রভু জগন্নাথদেবের কাছেও ক্ষমাপ্রার্থী। এই স্লিপ অফ টাংয়ের জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী। প্রায়শ্চিত্ব হিসেবে আমি উপোসও করব।’ যদিও সম্বিত ক্ষমা চাইলেও, এই নিয়ে বিতর্ক থামেনি। আর এবার সেই বিষয়ে মুখ খুললেন মমতাও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here