লিখছেন …

অঙ্কিতা বনিক

মনে পড়ে সেই করোনা সময় কালের কথা !

যখন করোনা ভাইরাসের উপদ্রব শুরু হয়েছিল, গৃহবন্দি হয়ে পড়েছিলেন মানুষ, সেদিন থেকে জীবনের সব রং যেন ফ্যাকাশে হয়ে যেতে বসেছিল! বাইরে বেরোনোর উপায় ছিল না, স্বাভাবিকভাবে সাজগোজ, মেকআপের মতো বিষয়গুলোকে যেন পূর্বজন্মের ঘটনা বলে মনে হতে শুরু করেছিল ! এমনকী, সেই সময় শেষ কবে কাজল পরেছিলেন সেটাও হয়তো এখন  মনে করে ঠিকঠাক বলতে পারবেন না কেউ কেউ! বিশ্রী একঘেয়েমি আর অবসাদ যেন ঘিরে ধরছিল চারপাশ।

প্রশ্ন হল, এই একঘেয়েমি আর অবসাদের কাছে আত্মসমর্পণ করে বসে থাকবেন? নাকি লড়াইটা চালাবেন? আমরা কিন্তু লড়াই চালানোরই পক্ষপাতী আর এই যুদ্ধে আমাদের হাতিয়ার হল রং। বিশ্বাস না হলে চোখের পাতায় অর্পিতার মতো রংধনুর আভা তৈরি করে দেখুন, বিবর্ণ জীবন নিমেষে মোহময়, ঝলমলে হয়ে উঠবে!

মুখ পরিষ্কার করে টোনার আর ময়শ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। হালকা সিসি ক্রিম দিয়ে বেস তৈরি করুন। গালে হালকা পিচ ব্লাশ লাগিয়ে নিন। ভুরু থ্রেড করা না থাকলেও কিছু যায় আসে না, একটুখানি পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে সুন্দর করে ব্রাশ করে নিন। এবার আইশ্যাডো পরার পালা। প্রথমে একদম হালকা ব্রাউন শ্যাডো নিয়ে পুরো চোখের পাতায় পরে নিন। তারপর সফট পিঙ্ক শ্যাডো চোখের ক্রিজ থেকে শুরু করে ল্যাশলাইন পর্যন্ত পরে নিন। ভালোভাবে আঙুল দিয়ে ব্লেন্ড করুন যাতে শার্প কোনও সীমানা না থাকে।

এবার ল্যাশলাইন বরাবর পার্পল বা মভ শ্যাডো লাইনার পরার মতো করে পরে ফেলুন। সামান্য বাইরের দিকে উইংও করতে পারেন। গোলাপি আর মভ শ্যাডো যে জায়গাটায় মিলছে, সেখানটা সুন্দর করে ব্লেন্ড করবেন যাতে স্বাভাবিকভাবে মিশে গেছে বলে মনে হয়। সব শেষে ল্যাশলাইন ঘেঁষে সরু করে কালো পেনসিল লাইনার দিয়ে রেখা টেনে দিন! ঠোঁটে পরুন আর্থ ব্রাউন শেডের ম্যাট লিপস্টিক।

এবার নিজেকে দেখুন আয়নায়! জীবনটা কত সহজে রঙিন হয়ে উঠেছে দেখছেন তো!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here