দেশের সময় ওয়েবডেস্কঃ পুলওয়ামার জঙ্গি হামলার স্মৃতি এখনও জ্বলজ্বল করছে। এর মধ্যেই খাস কলকাতার বুকে উদ্ধার হল প্রায় ১০০০ কেজি বিস্ফোরক। কলকাতা পুলিসের এসটিএফ শাখার আধিকারিকদের তৎপরতায় এড়ানো গেল বড়সড় কোনও নাশকতার ছক। শুক্রবার রাত ১২ টা ২০ নাগাদ টালা ব্রিজের উপর বিস্ফোরক বোঝাই গাড়িটিকে আটক করেন এসটিএফের আধিকারিকরা। ইতিমধ্যেই গাড়ির চালক ও খালাসিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ধৃতদের নাম ইন্দ্রজিত্‍ ভুঁই এবং পদ্মলোচন দে। তারা ওড়িশার বালেশ্বরের বাসিন্দা। লালবাজার সূত্রের খবর, শনিবারই ধৃতদের ব্যাঙ্কশাল আদালতে তোলা হবে এবং জেরার জন্য দু’‌জনকে হেপাজতে চাইবেন গোয়েন্দারা।
বিশেষ সূত্রে খবর পেয়েই বিস্ফোরক বোঝাই ম্যাটাডোরটিকে আটক করা সম্ভব হয়েছে।

এসটিএফ–এর আধিকারিকরা জানতে পারেন, ওড়িশা থেকে আসা একটি বিস্ফোরক বোঝাই গাড়ি কলকাতায় প্রবেশ করেছে এবং উত্তর কলকাতা দিয়ে সেটি ডানলপের দিকে যাবে। এরপরই গাড়িটিকে টালা ব্রিজের উপর আটক করেন তাঁরা। তল্লাশি চালাতেই প্রকাশ্যে আসে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক। ২৭টি বস্তায় প্রায় হাজার কেজি বিস্ফোরক (‌পটাশিয়াম নাইট্রেট)‌ উদ্ধার করেন তাঁরা।

জানা গিয়েছে, গাড়িটি ওড়িশা থেকে ডানলপ, বারাকপুর হয়ে উত্তর ২৪ পরগনার আরও ভিতরের দিকে যাচ্ছিল। তবে কী উদ্দেশ্যে এত বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক নিয়ে গাড়িটি এ রাজ্যে প্রবেশ করেছে, সেই প্রশ্নেরই উত্তর এখনও অজানা। সে বিষয়ে জানতে গাড়ির চালক এবং খালাসিকে জেরা করতে চাইছেন আধিকারিকরা। সামনেই লোকসভা নির্বাচন। তার আগে কোনওরকমের নাশকতা এড়াতে তৎপর কলকাতা পুলিশ৷

Previous articleপ্রতিরক্ষামন্ত্রকের টুইট,অপহৃত হননি সেনা জওয়ান
Next articleআই ফোন এ আপনার তথ্য কি সত্যিই সুরক্ষিত?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here