দেশেরসময়ওয়েবডেস্কঃ হলদিবাড়িতে ফ্ল্যাটের চাবি বিতরণ অনুষ্ঠান বয়কট করলেন সাবেক ছিটের বাসিন্দারা অথচ স্থায়ী ঠিকানা তৈরি। দিনভর অপেক্ষার পর মঙ্গলবার রাতে তাঁদের অস্থায়ী শিবিরে গিয়েও চাবি নেওয়ার জন্য বোঝালেন প্রশাসনের কর্তারা। কিন্তু জট কাটেনি এখনও। এই ঘটনায় রীতিমতো অস্বস্তিতে প্রশাসন।

ছিটের বাসিন্দাদের দাবি, ছিটমহলবাসীর পুনর্বাসনের জন্য দেওয়া কোনও প্রতিশ্রুতি রাখেনি রাজ্য সরকার। আর এই অভিযোগ তুলেই ফ্ল্যাটের চাবি নেওয়ার অনুষ্ঠান বয়কট করলেন সাবেক ছিটের বাসিন্দারা।

২০১৫ সালে ছিটমহল বিনিময়ের পর বাংলাদেশের ভেতরে থাকা ভারতীয় সাবেক ছিট থেকে ৯৬ টি পরিবার হলদিবাড়িতে আসে। এতদিন কৃষি ফার্মের অস্থায়ী শিবিরে রাখা হয়েছিল তাঁদের। গত শনিবার ফ্ল্যাট বিলির জন্য লটারি করতে হলদিবাড়ি সীমান্ত ভবনে একটি অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়েছিল। উপস্থিত ছিলেন কোচবিহারের জেলাশাসক পবন কাদিয়ান, মেখলিগঞ্জের বিধায়ক অর্ঘ্য রায় প্রধান-সহ অন্যান্যরা।

মঙ্গলবার, ফ্ল্যাটের চাবি বিলির জ‌ন্য একটি অনুষ্ঠান হয়। সেই অনুষ্ঠান বয়কট করেন ৯৬টি পরিবারে্র সমস্ত সদস্য। প্রশাসনের তরফে দফায় দফায় চেষ্টা করা হলেও চাবি নিতে অস্বীকার করে তাঁরা।

অস্থায়ী শিবিরের বাসিন্দা বাবলু রায় বলেন, ‘‘সোমবার কোচবিহারে মুখ্যমন্ত্রীর জানান, হলদিবাড়িতে ২৪কোটি ৪১লক্ষ টাকা খরচ করে ১২০টি ফ্ল্যাট নির্মাণ করেছে প্রশাসন। কিন্তু আদপে ফ্ল্যাট তৈরি হয়েছে ১০৪টি। ছিটমহল বিনিময় চুক্তির সময় আমাদের পুনর্বাসনের জন্য পরিবার পিছু পাঁচ লক্ষ টাকা, এবং গবাদি পশু দেওয়ার কথা ছিল। সে সব কিছুই পাইনি আমরা। এই সমস্ত প্রতিশ্রুতি পালন হলে তবেই ফ্ল্যাটের চাবি নেব আমরা।’’

বুধবার সকাল পর্যন্ত জট কাটার কোনও সম্ভাবনা দেখা যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here