মহাষষ্ঠীর সকালে বোধনের ঢাক, শঙ্খের আওয়াজে শুরু হয়ে গেল মহিষাসুরমর্দিনীর পুজো ৷আজ মহাষষ্ঠী বাঙালির সেরা উৎসবে মাতোয়ারা গোটা উত্তর ২৪পরগনা জেলা । দুই সীমান্ত অঞ্চল বসিরহাট ও বনগাঁ জুড়ে মন্ডপে মন্ডপে দর্শনার্থীদের ভিড় উপচে পড়েছে। বসিরহাট টাকি রায় চৌধুরী জমিদার বাড়ি থেকে ধান্যকুড়িয়ার গাইন জমিদার বাড়ির পুজোয়এদিন অতীত ঐতিহ্য মেনে প্রবাসী আত্মীয় পরিজন মিলে এলাকার মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতিতে মায়ের বোধন ঘিরে ছিল এক নতুন উন্মাদনা। এদিন, বসিরহাট ২ নম্বর ব্ল কের খোলাপোতা বাজার ব্যবসায়ী সমিতির ৬ত তম বর্ষের পুজোর আনুষ্ঠানিক উদ্ধোধন করেন, বিশিষ্ট সমাজসেবী সরোজ বন্দ্যোপাধ্যায়, পঞ্চায়েত প্রধান অপরেশ মুখোপাধ্যায়, পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি লক্ষী বিশ্বাস। পুজো উপলক্ষে বস্ত্রদান, সাংস্কৃতিক অনু ষ্ঠান এবং সমাজকল্যাণ মূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে সীমান্ত এলাকা বনগাঁর পেট্রাপোল, গাইঘাটার ঝাউডাঙা ও বাগদা সীমান্ত এলাকায় অন্যবারের তুলনায় এসডিপিও অনিল কুমার রায়ের নেতৃত্বে পুলিশ প্রশাসন যথেষ্ট সক্রিয়। সাদা পোশাকে মহিলা পুলিশ থেকে সিভিক ভলানটিয়ার এবং বিশেষ প্রশিক্ষিত বাহিনী প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ পুজো প্রাঙ্গনে উপস্থিত। বনগাঁর সেরা পুজোগুলির মধ্যে পুরপ্রধান শঙ্কর আঢ্য রপুজো বলে খ্যাত শিমূলতলা আয়রন গেট,মতিগঞ্জ ১৫ পল্লি যুব গোষ্ঠী, অভিযান সংঘ, ৩নম্বর টালিখোলার এগিয়ে চলো সংঘ,ঢাকাপাড়া, প্রতাপগড় স্পোর্টিং ক্লাব,আমলাতলা স্পোর্টিং ক্লাব এবং বনগাঁর সিদ্ধেশ্বরী কালীমন্দির পুজো প্রাঙ্গণে মানুষের ঢল। বনগাঁ. এবার শারদৎসবে থিম, আলো,মন্ডপের পাশাপাশি সমাজসেবায় নতুন নজির তৈরি করেছে। বনগাঁর প্রাক্তন বিধায়ক গোপাল শেঠ মহাষষ্ঠীর দিন নিজের উদ্যোগে দুঃস্থ মানুষের হাতে নতুন বস্ত্র তুলে দেন। হাবড়া ও অশোকনগরের পুজো উদ্ধাধনে খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, দুই পুরপ্রধান নীলিমেশ দাস ও প্রবোধ সরকার, বিধায়ক ধীমান রায়রা জনসংযোগ বাড়াতে ছিলেন তৎপর।
Previous article“মন্ডপে মন্ডপে মমতা” দর্শণার্থীদের ভিড় উপচে পড়ছে শহর থেকে শহরতলি৷
Next articleবীণাপাণী দেবীকে পুজোর উপহার মমতার:দেশের সময়:

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here