দেশের সময় ওয়েবডেস্কঃ আলাস্কার সোলদোতনা শহরের বিমানবন্দরের কাছেই উড়ছিল দু’টি বিমান। তার একটি বিমানে একাই ছিলেন আলাস্কার আইনসভার সদস্য গ্যারি নোপ। তিনি বিমানটি চালাচ্ছিলেন। অপর বিমানে ছিলেন সাউথ ক্যারোলিনার চারজন পর্যটক, তাঁদের গাইড ও পাইলট সহ ছ’জন। মাঝ আকাশে দু’টি বিমানের ধাক্কা লাগে। বিমানদু’টি ভেঙে পড়ে মাটিতে। গ্যারি নোপ ঘটনাস্থলে মারা যান। অপর বিমানেরও ছয় যাত্রীরও সেখানেই মৃত্যু হয়। একজনকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। পথেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

দু’টি বিমানের ধ্বংসস্তূপ ছড়িয়ে পড়ে বিমানবন্দরের নিকটবর্তী হাইওয়েতে। হাইওয়ে খানিকক্ষণ বন্ধ রাখা হয়। ফেডারেল অ্যাভিয়েশন অ্যাডমিনস্ট্রেশন জানায় একটি বিমান ছিল ডি হ্যাভিল্যান্ড ডিএইচসি টু বিভার জাতের। অপর বিমানটি সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি।

৬৭ বছর বয়সী গ্যারি নোপ ছিলেন রিপাবলিকান পার্টির সদস্য। তাঁর দলের কয়েকজন নেতা গ্যারি নোপের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন। আইনসভার স্পিকার ব্রাইস এডগোমন বলেন, “বিমান দুর্ঘটনায় গ্যারির প্রাণ গিয়েছে শুনে আমি মর্মাহত। তিনি ছিলেন প্রকৃত আলাস্কান। তাঁর অনুপস্থিতি অনেকেই অনুভব করবেন।”

এছাড়া মৃতদের মধ্যে আছেন বিমানচালক গ্রেগরি বেল (৬৭), গাইড ডেভিড রোজার্স (৪০) এবং সাউথ ক্যারোলিনার চার পর্যটক ক্যালেব হালসি (২৬), হিদার হালসি (২৫), ম্যাকে হালসি (২৪) এবং ক্রিস্টিন রাইট (২৩)।

এর আগে ২০১৯ সালের মে মাসে আলাস্কার কেটচিকানে মাঝ আকাশে দু’টি প্লেনের ধাক্কা লাগে। দু’টি বিমানের ছ’জন যাত্রী নিহত হন। তাঁদের মধ্যে কয়েকজন ছিলেন পর্যটক। ১০ জন যাত্রী রক্ষা পেয়েছিলেন। তাঁদের দুর্ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.