দেশের সময় ওয়েবডেস্কঃ বিদেশ ভ্রমণের টোপ দিয়ে ডাক্তারদের প্রলুব্ধ করার চেষ্টা করলে কঠিন শাস্তি পেতে হবে ফার্মা কোম্পানিগুলিকে, হুঁশিয়ারি দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

প্রধানমন্ত্রীর দফতর (পিএমও) থেকে জানানো হয়, নিজেদের প্রোডাক্ট বিক্রির জন্য প্রায়শই নামীদামি ওষুধ কোম্পানিগুলি ডাক্তারদের ফরেন ট্রিপে পাঠায়। বিদেশ ভ্রমণে সুন্দরী মহিলাদের টোপও দেওয়া হয়। তা ছাড়া দামি মোবাইল, গাড়ির প্রলোভন তো রয়েছেই। দেশের নামী ফার্মা কোম্পানিগুলির সঙ্গে বৈঠকে সরকারি দফতর থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়, ‘মার্কেটিং স্ট্র্যাটেজির’র জন্য কোনওরকম ঘুষ দেওয়া শুধু নৈতিক দিক থেকেই নয়, আইনত অপরাধ।

সূত্রে খবর, গত ২ জানুয়ারি কাডিলা হেলথকেয়ারের গ্রুপ ফার্ম জিদাস কাডিলা, টরেন্ট ফার্মাসিউটিক্যালস, ওকহার্টের মতো দেশের প্রথম সারিতে থাকা ওষুধ সংস্থাগুলির শীর্ষ আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। জিদাস ক্যাডিলা গ্রুপের শীর্ষ কর্তা পঙ্কজ পটেল, টরেন্টের সুধীর মেহতা এবং ওকহার্টের হাবিল খোরাকিওয়ালা ছিলেন সেই বৈঠকে। সেখানেই ড্রাগ কোম্পানিগুলিকে এই সতর্কবার্তা দেওয়া হয়।

সংস্থার আধিকারিকদের প্রধানমন্ত্রী বলেন, দিনের পর দিন ডাক্তারদের নানারকম প্রলোভন দেখিয়ে নিজেদের পণ্য বেচার চেষ্টা করছে ড্রাগ কোম্পানিগুলো। তাদের লেবেল সাঁটা ওষুধ প্রেসক্রাইব করলেই ডাক্তারদের মোটা টাকা ঘুষ বা বিদেশ ভ্রমণের সুবিধা করে দেওয়া হচ্ছে। এমনকি সুন্দরী মহিলাদের দিয়েও টোপ দেওয়া হচ্ছে ডাক্তারদের। ঘুষ দেওয়ার এই প্রক্রিয়া পুরোপুরি অনৈতিক। প্রধানমন্ত্রী সতর্ক করে বলেন, কোনও ফার্মা কোম্পানির বিরুদ্ধে এমন ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ সামনে আসলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি পদক্ষেপ করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী দফতর থেকে জানানো হয়েছে, বৈঠকের পরেও ফার্মা কোম্পানিগুলোর শীর্ষ আধিকারিকদের ইমেল ও মেসেজ করে এই সতর্কবার্তা পাঠানো হয়। কিন্তু তাদের তরফ থেকে যথাযোগ্য উত্তর পাওয়া যায়নি। অভিযোগ, পিএমও অফিস থেকে পাঠানো ইমেলের উত্তর দেননি জিদাস কাডিলা গ্রুপের শীর্ষ আধিকারিক পঙ্কজ পটেল।

Previous articleসরস্বতী পুজোয় অভিনব উদ্যোগ বনগাঁ বটতলা যুব গোষ্ঠীর
Next articleআগে গুলি করা উচিত দিলীপ ঘোষকে, বললেন অনুব্রত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here