দেশের সময় ওয়েবডেস্ক: কনকনে উত্তুরে হাওয়ায় পারদ নামল দ্রুত। কলকাতা–সহ আশপাশের এলাকায় গড়ে তুলল শীতল দিনের (‌সর্বোচ্চ তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে ৫ ডিগ্রি কম)‌ পরিস্থিতি। আজ, শুক্রবার কলকাতা–সহ দক্ষিণবঙ্গের ১১ জেলায় শৈত্যপ্রবাহ হতে পারে।

কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নামতে পারে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে। আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে এরকম কনকনে পরিস্থিতি থাকতে পারে শনিবারও। মঙ্গল থেকে বৃহস্পতিবার সকাল— দু’দিনে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কমেছে ৬ থেকে ৭ ডিগ্রি। সর্বোচ্চ তাপমাত্রাও ৪ থেকে ৫ ডিগ্রি নেমেছে। এক ধাক্কায় এতটা পারদ নামায় শীতের আমেজ তীব্র হয়েছে। জমজমাট শীত উত্তরবঙ্গেও।
প্রবল উত্তুরে হাওয়ায় জেলায় জেলায় বুধবার রাত থেকেই জবুথবু পরিস্থিতি। বৃহস্পতিবার সকালে অনেককেই দেখা গেল আগুন জ্বালিয়ে তাপ পোহাতে। বেলা গড়াতে রোদ চড়লেও সেই তাপ যেন গায়ে লাগেনি। বহু জায়গায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল স্বাভাবিকের চেয়ে ৫ ডিগ্রি বা তার চেয়েও বেশি কম। বেশির ভাগ জায়গায় দিনভর গড় তাপমাত্রা ছিল ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে। তাতে সন্ধে হতেই ফের কনকনে আমেজ তৈরি হয়।
কলকাতায় এদিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১১.‌৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দু’‌দিনে এই তাপমাত্রা নেমেছে ৭ ডিগ্রি। আর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২১.‌৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের চেয়ে ৫ ডিগ্রি কম। তৈরি হয় শীতল দিনের পরিস্থিতি। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা কম ছিল দক্ষিণবঙ্গের সর্বত্র। আসানসোলে এদিন সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ১৯.‌৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, পানাগড়ে ২০.‌১, মালদায় ২০.‌২, পুরুলিয়ায় ২০.‌৩, কৃষ্ণনগরে ২০.‌৬, শ্রীনিকেতনে ২১.‌০, কলাইকুন্ডায় ২১.‌৬, দমদমে ২১.‌৭।
আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, শুক্রবার কলকাতা–সহ দুই ২৪ পরগনা, বাঁকুড়া, বীরভূম, পুরুলিয়া, দুই বর্ধমান, হুগলি, নদিয়া এবং মুর্শিদাবাদে শৈত্যপ্রবাহ হতে পারে। সর্বোচ্চ তাপমাত্রাও থাকবে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশ কম। থাকবে শীতল দিনের পরিস্থিতি।
মৌসম ভবন জানিয়েছে, জম্মু–কাশ্মীর, হিমাচল প্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিগড়ে প্রবল শৈত্যপ্রবাহ চলছে। ওই অঞ্চল থেকে প্রবল উত্তুরে হাওয়া বয়ে আসছে রাজ্যে। তাতেই তাপ নামছে দ্রুত। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা এক ধাক্কায় ৬ থেকে ৭ ডিগ্রি কমেছে। পাশাপাশি হাওয়ায় জলীয় বাষ্প রয়েছে বেশি। সন্ধে হতেই জোলো হাওয়া আর কম তাপে তৈরি হচ্ছে প্রবল কনকনে আমেজ।

মৌসম ভবন জানিয়েছে, এরকম পরিস্থিতি আরও কয়েক দিন চলবে। তবে সোমবার থেকে তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে পারে। অবশ্য শীতের আমেজ বজায় থাকবে।

Previous articleদেশজুড়ে গণভোট হোক,মমতার সরকারই পড়ে যাবে: মুকুল রায়
Next articleঅমিত শাহের বাড়ির কাছেই বিক্ষোভে উত্তাল রাজধানী, আটক প্রণব-কন্যা শর্মিষ্ঠা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here