দেশের সময় ওয়েবডেস্কঃ দেশজুড়ে এনআরসি চালু করার কথা বলছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। আর তা নিয়ে মানুষের মধ্যে তৈরি হয়ে তীব্র আতঙ্ক। সম্প্রতি অসমেও নাগরিক পঞ্জির চূড়ান্ত তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। সেই তালিকা থেকে বাদ গিয়েছেন ১৯ লক্ষ মানুষ। বহু মানুষ ছোট ছোট ভুলভ্রান্তির কারণেই এখন ডিটেনশন ক্যাম্পে পচছেন। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের পরবর্তী লক্ষ্য পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি চালু করা। আর সেই আতঙ্কেই বাংলায় আত্মহত্যা করছেন প্রচুর সাধারণ মানুষ। বাংলায় যদি এনআরসি করতে সক্ষম হয় কেন্দ্রীয় সরকার, সেক্ষেত্রে কী কী নথি প্রয়োজন, জেনে নিন।

() ১৯৭১ সালের ২৪ মার্চ মধ্যরাতের আগে কারও নিম্নলিখিত নথিপত্রের নাম না থাকলে তিনি এনআরসি ভুক্ত হতে পারেনি। সেক্ষেত্রে প্রয়োজন.‌.‌.‌
ক. ১৯৫১ সালের এনআরসি তালিকায় নাম।
খ. ১৯৭১ সালের আগের ভোটার তালিকায় ।
গ. জমির বা বাড়ির প্রমাণ।
ঘ. নাগরিকত্ব সার্টিফিকেট।
ঙ. স্থায়ী বসবাসের শংসাপত্র।
চ. এলআইসি পলিসি, পাসপোর্ট, সরকারি সার্টিফিকেট।
ছ. সরকারি সেবা বা চাকরি সার্টিফিকেট।
জ. জন্মের শংসাপত্র।
ঝ. স্কুল বা বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্টিফিকেট।
ঞ. পোস্ট অফিসের কাগজ–পত্র।

(আ) ১৯৭১ সালের ২৪ মার্চ মধ্যরাতের আগে বাবা, মা, ঠাকুরদা বা ঠাকুমা নিম্নলিখিত তালিকায় নাম থাকলেও মিলতে পারে নাগরিকত্ব। সেক্ষেত্রে প্রয়োজন.‌.‌.‌
১. জমির রেকর্ড।
২. বিবাহিত মহিলাদের ক্ষেত্রে সার্কেল ইনস্পেক্টর গ্রাম পঞ্চায়েত সার্টিফিকেট।
৩. ১৯৭১ সালের আগে ভোটের তালিকা।
৪. রেশন কার্ড, ব্যাঙ্ক, এলআইসি বা পোস্ট অফিসের কাগজ।
৫. অন্য যেকোনও আইনগতভাবে বৈধ সরকারি নথিপত্র।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here