দেশের সময়, বনগাঁ: রেশন বণ্টন দুর্নীতি মামলায় ইডির হাতে গ্রেফতার হয়েছেন বনগাঁর প্রাক্তন পুরপ্রধান তথা তৃণমূল নেতা শঙ্কর আঢ্য ওরফে ডাকু। তাঁর ‘উপযুক্ত শাস্তি’র দাবিতে বুধবার পথে নেমেছিল সিপিএম। এবার বৃহপতিবার শঙ্করের বিরুদ্ধে বেআইনি হোটেল ব্যবসার অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ দেখাল বিজেপি ৷

বছরে মাত্র ৫ হাজার টাকার বিনিময়ে বনগাঁ পুরসভার কাছ থেকে ৯৯৯ বছরের জন্য লিজ নিয়ে হোটেল ব্যবসা চালাচ্ছে পুলিশের চোখের সামনেই ৷ পুরসভার বিজেপি কাউন্সিলর দেবদাস মন্ডল এমনই অভিযোগ তুলে ধরল শঙ্কর আঢ্যর বিরুদ্ধে ৷

ঠিক কি অভিযোগ কোরছেন বিজেপি নেতা দেবদাস মন্ডল ৷আর কি বলছেন তৃণমূল নেতা নারায়ণ ঘোষ। দেখুন ভিডিও

রেশন বণ্টন দুর্নীতি মামলায় ইডির হাতে গ্রেফতার হয়েছেন বনগাঁর প্রাক্তন পুরপ্রধান তথা তৃণমূল নেতা শঙ্কর আঢ্য (ডাকু)। তাঁর ‘উপযুক্ত শাস্তি’র দাবিতে বুধবার পথে নামে সিপিএম। গত বুধবার বিকেলে বনগাঁ শহরে হীরালাল মূর্তি এলাকায় দলের কার্যালয় থেকে মিছিল শুরু হয়। মিছিল বনগাঁ শহর প্রদক্ষিণ করে। ছিলেন দলের উত্তর ২৪ পরগনা জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য সত্যসেবী কর, বনগাঁর প্রাক্তন বিধায়ক পঙ্কজ ঘোষ, সিপিএমের বনগাঁ শহর এরিয়া কমিটির সম্পাদক সুমিত কর প্রমুখ।

এদিন সিপিএম কার্যালয়ে সাংবাদিক বৈঠক করেন নেতারা। তাঁদের অভিযোগ, শঙ্কর পুরপ্রধান থাকাকালীন বনগাঁ শহরে ত্রাসের রাজত্ব, আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি করেছিলেন। মানুষ ভয়ে মুখ খুলতে পারতেন না। তোলাবাজি, খুনখারাপি- কিছুই বাদ যায়নি।

সত্যসেবী শঙ্করের বিরুদ্ধে নির্দিষ্ট কয়েকটি অভিযোগ তোলেন। তিনি বলেন, ‘‘বনগাঁ থানার সামনে শঙ্কর একটি জলাজমি বুজিয়ে ভরাট করে বিল্ডিং করেছিলেন। সেখানে এখন হোটেল তৈরি হয়েছে। পুরসভার টাকায় তৈরি ওই বিল্ডিং কাউকে ৯৯৯ বছরের জন্য লিজ়ে দেওয়া হয়েছে। এটা করা যায় না, সম্পূর্ণ বেআইনি।’’ সত্যসেবীর প্রশ্ন, বর্তমান পুরবোর্ডও বা এ নিয়ে কী পদক্ষেপ করছে? বতর্মান পুরপ্রধান গোপাল শেঠ এ নিয়ে মন্তব্য করতে চাননি। পুর প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, ৯৯৯ বছরের লিজ়ে দেওয়ার সংস্থান পুরআইনে নেই। লিজ়ের পাশাপাশি বছরে পুরসভাকে ৫ হাজার টাকা ভাড়া দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল। তবে বর্তমান পুরবোর্ড ওই টাকা নেয় না। পুরপ্রশাসন বিষয়টি অনেক দিন আগেই ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছিলেন বলে দাবি করা হয়েছে।

সিপিএমের দেখান পথেই ফের বৃহস্পতিবার বিজেপি শঙ্কর আঢ্যর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করে বনগাঁ শহরে ৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here