Art and Crafts exibition: সরকারি চারু ও কারুকলা মহাবিদ্যালয়ের বার্ষিক প্রদর্শনী

0
115
সঙ্গীতা চৌধুরী :

৪ মার্চ থেকে সরকারি চারু ও কারুকলা মহাবিদ্যালয়ের ১৫৯ তম বার্ষিক প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। চলবে ১০ মার্চ অবধি। এ বছরই প্রথম মহাবিদ্যালয়ের প্রাঙ্গন ছেড়ে এই প্রদর্শনীর আয়োজন হয়েছে অ্যাকাডেমি অব ফাইন আর্টস ও গগনেন্দ্র শিল্প প্রদর্শনশালায়।

প্রদর্শনীটির উদ্বোধন করেন প্রথিতযশা চিত্রকর যোগেন চৌধুরী ও ভাস্কর বিমান বিহারী দাস। এছাড়াও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সরকারি চারু ও কারুকলা মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ছত্রপতি দত্ত, সহকারী অধ্যাপক অরুণ পাল, গৌতম দাস ও অমিত দেবনাথ প্রমুখ। 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এই মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ছত্রপতি দত্ত বলেন , ” আজকে ভারতবর্ষে যে কটি শিল্প প্রতিষ্ঠান আছে তারমধ্যে সরকারি চারু ও কারুকলা মহাবিদ্যালয়েরই সম্ভবত সবচেয়ে বেশি বিভাগ রয়েছে।

যদিও সেটা আলাদা করে বিভাগ নয়, স্পেশালাইজেশন মাত্র। এখানে পেন্টিং, গ্রাফিক্স ডিজাইন, টেক্সটাইল ডিজাইন, স্কাল্পচার, সেরামিক আর্ট অ্যান্ড পটারি ইত্যাদি আরো বিভিন্ন দিকের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বর্তমানে প্রায় সাড়ে পাঁচশো ছাত্র – ছাত্রীর প্রশিক্ষণ চলছে। আমরা চেষ্টা করেছি এই প্রদর্শনীতে প্রায় সবার কাজকেই স্থান দিতে। যাতে ক্যাটলগে ভবিষ্যতে সেই নথি রেখে দেওয়া যায়। এই প্রদর্শনীর মূল উদ্দেশ্য হলো ছাত্র- ছাত্রীদের কাজের উৎকর্ষতা প্রদর্শন।” তবে এবার প্রদর্শনীটি স্থানান্তরিত হলো কেন ?

এর উত্তরে অধ্যক্ষ জানান, ” আমাদের মহাবিদ্যালয়ের স্থাপত্য বহুকালের, তাই বর্তমানে এর মেরামতির প্রয়োজন পড়েছে, সেজন্য আমরা এবার প্রদর্শনীটি অন্য স্থানে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।” বিশিষ্ট চিত্রকর যোগেন চৌধুরী একসময় এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেরই ছাত্র ছিলেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসে তিনি সে সময়কার অনেক স্মৃতিচারণা করেন। 

প্রতিদিন দুপুর দুটো থেকে রাত আটটা অবধি এই প্রদর্শনী খোলা থাকছে।

Previous articlePSC INTERVIEW এবার কি হাই কোর্টের জজরাই চাকরি প্রার্থীদের ইন্টারভিউ নেবেন, রাজ্য সরকার জানিয়ে দিক, পি এস সি জনস্বার্থ মামলায় নির্দেশ উচ্চ আদালতের প্রধান বিচারপতির
Next articleIs Gender Equality Enough? Equity is also Essential

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here