“এরা” বিউটি টিপস~
বিয়ের ভরা মরশুম। এ মরশুমে যাঁদের বিয়ে ঠিক হয়েছে, তাঁরা নিশ্চয়ই নিজের যত্ন নেওয়া শুরু করে দিয়েছেন? আপনার নিজের বিয়ে নয়, কাছের আত্মীয় বা বান্ধবীর বিয়ে? সে ক্ষেত্রেও একইরকম নজর দেওয়া দরকার!ত্বকের যত্ন যেমন নেবেন, তেমনি চুলের জন্যও আলাদা করে খেয়াল রাখতে হবে। চুলের যে কোনও সমস্যা, যেমন খুসকি, চুল ওঠা, রুক্ষ চুল, ইত্যাদি থাকলে তা মিটিয়ে ফেলার এটাই উপযুক্ত সময়। কীভাবে চুলের যত্ন নেবেন, তার জন্য চোখ বুলিয়ে নিন আমাদের সহজ টিপসে।


1. দিনক্ষণ ঠিক হওয়ার পর থেকেই নিয়মিত চুলের পরিচর্যা শুরু করে দিতে হবে। আপনার যদি অত্যধিক চুল ওঠে বা প্রচণ্ড খুসকি হয়, তা হলে ঘরোয়া টোটকার উপর নির্ভর না করে প্রথমেই ডাক্তার দেখিয়ে নিন। এই সমস্যাগুলো যদি কোনও আভ্যন্তরীণ গোলযোগের কারণে হয়ে থাকে, তা হলে প্রথমেই তার সমাধান খোঁজা দরকার।

2. চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে মেডিকেটেড শ্যাম্পু লাগালে খুসকি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। ভিটামিন সাপ্লিমেন্ট দিয়ে চুল ওঠাও বন্ধ করা যায়। ঘরোয়া টোটকাও রয়েছে। অলিভ বা আমন্ড অয়েলের সঙ্গে পাতিলেবুর রস মিশিয়ে মাখলে খুসকি কমে যাবে। চুল ওঠা বন্ধ করতে কয়েকটা জবাফুলের পাপড়ি মিহি করে বেটে তাতে পরিমাণমতো নারকেল তেল মেশান। সারা মাথায় ঘষে ঘষে লাগিয়ে একঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে নিন। সপ্তাহে একদিন করলেই ফল পাবেন।3. চুলের স্বাভাবিক নরম, উজ্জ্বলভাব ধরে রাখতে তেল লাগাতেই হবে। তার সঙ্গে সপ্তাহে একদিন হট অয়েল ট্রিটমেন্ট করাটাও মাস্ট। আপনার চুলের দৈর্ঘ্য অনুযায়ী পরিমাণমতো নারকেল, আমন্ড বা অলিভ অয়েল হালকা গরম করে নিয়ে ভালো করে চুলে ও স্ক্যাল্পে মাসাজ করুন। রাতে শুতে যাওয়ার আগে করতে পারলে সবচেয়ে ভালো, তাতে চুল তেলটা শুষে নেওয়ার পর্যাপ্ত সময় পাবে। সকালে শ্যাম্পু করে কন্ডিশনার লাগিয়ে নিন, এতে চুল নরম থাকবে।

4. যাঁরা নিয়মিত স্পা করেন, তাঁরা চুলের যত্নে বেশ কিছুটা এগিয়ে রয়েছেন। যাঁরা করেন না, তাঁরা মাসে দু’বার, না হলে অন্তত একবার ভালো সালোন থেকে স্পা করান। যাঁরা চুলে রং বা কোনও ট্রিটমেন্ট করান, তাঁদের স্পা করাতেই হবে।


5. ব্লসম কোচারের পরামর্শ, বিয়ের অন্তত দু’ মাস আগে থেকে সবরকম কেমিক্যাল ট্রিটমেন্ট বা হিট স্টাইলিং ট্রিটমেন্ট এড়িয়ে চলুন।

6. নিয়মিত চুলের ডগা ছেঁটে ফেলুন, তাতে ফাটা চুল থাকবে না, চুল বাড়বেও তাড়াতাড়ি।

7. স্নানের পর ভেজা চুল আঁচড়ানোর চেষ্টা করবেন না। চুল আধ শুকনো হলে মোটা দাঁড়ার কাঠের চিরুনি দিয়ে ধীরে ধীরে আঁচড়ে জট ছাড়িয়ে নিন, তাতে চুল কম উঠবে।

8. শেষে এসে একটাই কথা। ভিতর থেকে হাসিখুশি থাকুন, রসবোধ ধরে রাখুন। তা হলে ওই বিশেষ দিনগুলোতেও সবচেয়ে ঝলমলে দেখাবে আপনাকেই!

Previous articleঅসুস্থ বড়মা, বাড়ছে উদ্বেগ
Next articleমাসুদ আজহারের মৃত্যুর খবর ঘিরে জল্পনা তুঙ্গে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here