দেশের সময় ওয়েবডেস্ক:হাতে গোনা আর চার দিন। রবিবারের বিকেলে শীতের আমেজ গায়ে মেখে বাঙালির গন্তব্য হবে যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গন। যদিও তার আগে কিছু প্রশ্ন ভাবনায় রেখেছে দুই প্রধানকে। আর যার মধ্যে অন্যতম এনরিকে প্রসঙ্গ। ভাবনার বিষয় দেশে ফের‍া জন্য কি এই মেক্সিকান স্ট্রাইকারকে অনুমতি দেবেন কোচ আলেহান্দ্রো মেনেনদেজ? ডার্বিতে তার উপস্থিতি নিয়ে নিশ্চিত নয় লাল হলুদ শিবির। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, “বিশ্রামে রয়েছেন এনরিকে”। “তার শারীরিক অবস্হা কেমন তা এখনই বলা অসম্ভব”। অতএব যদি বড়ো ম্যাচে এই মেক্সিকান স্ট্রাইকারকে ছাড়া মাঠে নামতে হয় ইস্টবেঙ্গল-কে তাহলে আলেহান্দ্রো-র বিকল্প পথ কি হতে পারে? দ্বিতীয়ত, কলকাতায় পা রাখলেও কোলাডো-কে নিয়ে স্বস্তি-তে নেই লাল হলুদ শিবির। কারন তার সই প্রক্রিয়া এখনও শেষ হয়নি। যদিও ক্লাব সূত্রে খবর, “প্রয়োজনীয় নথিপত্র শুক্রবারের মধ্যে চলে আসার কথা, তাই মনে করা হচ্ছে ডার্বির আগে সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে”। তৃতীয়ত, আমনার বিকল্প হিসেবে ভেবে নেওয়া টোনি? পূর্ববর্তী ম্যাচগুলোতে মাঝ মাঠ যথেষ্ট ভূগিয়েছে কোচ আলেহান্দ্রো-কে। বড়ো ম্যাচেও যদি সেই সমস্যার সমাধান না হয় তবে তা নিঃসন্দেহে খুব চিন্তায় রাখবে লাল হলুদ শিবিরকে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ডার্বির আগে তার দমদম বিমানবন্দরে পা রাখা সম্ভব হচ্ছে না। পাশাপাশি বাগান শিবিরকে এই মুহূর্তে ভাবনায় রেখেছে সনি নর্দে প্রসঙ্গ। বিগত ম্যাচগুলোতে কোচ শঙ্কর লাল চক্রবর্তী যে ভাবে সনি-কে নিয়ে পরিকল্পনা করেছেন তাতে রবিবার কি আদৌ ৯০ মিনিট মাঠে থাকবেন তিনি? এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতেই এখন ব্যস্ত সবুজ মেরুন তাবু। আর এইসবের মাঝেই দুই ক্লাবের পক্ষ থেকেই শুরু হয়েছে বড়ো ম্যাচের টিকিট বিক্রি। যেখানে শহরের দুই প্রধান দলের সমর্থকদের ভীর চোখে পড়ার মতো। বলার বিষয় এখনও ইস্টবেঙ্গল থেকে রবিবারের জন্য অনুশীলন শুরু করা হয়নি। বেঙ্গালুরু থেকে কোচ আলেহান্দ্রো শহরে ফিরলে শুরু করা হবে বড়ো ম্যাচের প্রস্তুতি। এনরিকে-র প্রশ্নে এক লাল হলুদ কর্তা বলেন “সবকিছু ভাবনা চিন্তা করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন কোচ”। “আমরা কোচের সাথে কথা বলেছি”। “তিনি জানিয়েছেন ওর শারীরিক পরিস্থিতির উপর নজর রাখতে হবে”। “তারপর বাকিটা বলা সম্ভব”। অন্যদিকে মোহনবাগান ক্লাব সূত্রে খবর, “ডার্বি-তে সনিকে নিয়ে কোন সমস্যা হবে না”। “ফিজিও-র সাথে অনেকটা সময় দিচ্ছে ও, সেক্ষেত্রে সম্পুর্ন তৈরি হয়ে সনি রবিবার মাঠে নামতে পারবেন”। “পাশাপাশি অ্যাটাকিং মিডিও হিসেবে দলে থাকছেন এলহুসেইন। আর তার উপস্থিতিতে অনেকটাই স্বাচ্ছন্দ বোধ করবেন সনি”।

Previous articlePHOTO OF THE DAY
Next articleবড় দিনের কেকে নজড়

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here