দেশের সময় ওয়েবডেস্কঃ তিনি নিজেও লড়াই–আন্দোলন করতে গিয়ে আঘাতের সম্মুখীন হয়েছিলেন। বড় বড় আঘাত নেমে এসেছিল তাঁর ওপর। কিন্তু থেমে যাননি। বরং নতুন উদ্যমে গর্জে উঠেছিলেন অন্যায়ের বিরুদ্ধে, অপশাসনের বিরুদ্ধে। তাই জেএনইউ ক্যাম্পাসে ঢুকে ছাত্রদের ওপরে হামলার প্রতিবাদে কবিতা লিখে ছাত্রছাত্রীদের গর্জে ওঠার বার্তা দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।


এই গেরুয়া তাণ্ডবের বিরুদ্ধে আগেই সরব হয়েছিলেন তিনি। এমনকী এই হামলাকে তিনি ফাসিস্ট সার্জিক্যাল স্টাইক বলে বর্ণনা করেন। নির্যাতিত পড়ুয়াদের পাশে দাঁড়াতে দিল্লিতে তৃণমূল প্রতিনিধি দলও পাঠিয়েছেন তিনি। দেশজুড়ে সেই হামলার প্রতিবাদের বাতাবরণে কলম ধরলেন তৃণমূল নেত্রী। একদিকে রাখলেন অবাধ সমর্থন, অন্যদিকে বার্তা দিলেন ছাত্রছাত্রীদের।


বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কবিতার নাম ‘গর্জে ওঠো’। দেশ কোথায় চলেছে তা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তৃণমূল নেত্রী। পাশাপাশি ঔদ্ধত্যের কাছে মাথানত না করে আত্মপ্রত্যায়ের আগুন জ্বালাতে বলেছেন কবিতার মাধ্যমে।

মানবিকতার দ্বারে যে ঘৃণ্যশক্তি পাখা মেলেছে তাকে ঔদ্ধত্যের গর্দ্ধলোক বলে ব্যাখ্যা করেছেন তিনি। আসলে ধিক্কারকের পাশাপাশি জ্বলে উঠতে অনুপ্রেরণা দিয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।
উল্লেখ্য, সিএএ–এনআরসির বিরুদ্ধেও কবিতায় প্রতিবাদ করেছিলেন মমতা। কবিতার নাম ছিল অধিকার। বিভাজনকারী শক্তির সমালোচনা করে প্রশ্ন তুলেছিলেন কেন তাঁর অধিকার হরণ করবে কেউ?‌ আর আজ লিখলেন গর্জে উঠতে হবে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here