রাওয়ালপিন্ডির সেনা হাসপাতালে রয়েছে জইশ প্রধান মাসুদ আজহার সূত্রের খবর

0
735

ভারতীয় বায়ুসেনার প্রত্যাঘাতে গুঁড়িয়ে গিয়েছে একাধিক জইশ ঘাঁটি। সেনার হাতে নিহত জইশ প্রধান মাসুদ আজহারের শ্যালক ইউসুফ আজহার। কিন্তু হামলার আগেই ক্যাম্প থেকে পালিয়ে গিয়েছেন মাসুদ আজহার। সূত্রের খবর, জইশ প্রধানকে রাওয়ালপিন্ডির সেনা হাসপাতালে রাখা হয়েছে।

মঙ্গলবার ভোরে ১২টি মিরাজ ২০০০ যুদ্ধবিমান নিয়ে হানা দেয় ভারতীয় বায়ুসেনা। নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের ৮০ কিলোমিটার ভেতরে বালাকোটে জইশ লঞ্চপ্যাড ও ট্রেনিং ক্যাম্প লক্ষ্য করে প্রায় ১০০০ কেজি বিস্ফোরক নিক্ষেপ করা হয়। সূত্রের খবর, এই হামলায় অন্তত ৩৫০ জইশ জঙ্গি নিহত হয়েছে। এই হামলায় নিহত হয়েছে জইশ প্রধান মাসুদ আজহারের শ্যালক ইউসুফ আজহার। নিহত হয়েছে ২৫ জইশ প্রশিক্ষক। সেনা সূত্রে খবর, এই হামলার আগেই জইশ প্রধানকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে রাওয়ালপিন্ডির সেনা হাসপাতালে। আপাতত সেখানেই রাখা হয়েছে তাঁকে।

পুলওয়ামায় হামলার পর থেকেই মাসুদ আজহারকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়ার দাবি জানিয়েছে কেন্দ্র। তখন পাক সরকারের তরফে বলা হয়েছিল, পাক প্রশাসনের কাছে মাসুদ আজহারের ব্যাপারে কোনও খবর নেই। এর পরেই দিল্লি চ্যালেঞ্জ জানিয়ে পাক প্রশাসনকে বলে, বাহাওয়ালপুরে রয়েছেন মাসুদ। যান গিয়ে গ্রেফতার করুন। তারপরেই পাক সেনার তরফে জানানো হয়, বাহাওয়ালপুরে জইশ সদর দফতরের দখল নিয়েছে তারা। ২৪ ঘণ্টা পর আবার ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে পাকিস্তান জানায়, সেখানে পড়াশোনা হয়, জঙ্গি কার্যকলাপ হয় না।

ভারতীয় বায়ুসেনা সূত্রে খবর, মাসুদ আজহারকে বাঁচানোর চেষ্টা করছে পাক সেনা ও প্রশাসন। তাঁকে সেনা হাসপাতালে শেল্টার দেওয়া থেকেই এটা পরিষ্কার। পাক সরকার যতই বলুক, জইশ প্রধানের ব্যাপারে তাদের কাছে কোনও খবর নেই, সেটা পুরোটাই মিথ্য। জইশকে ভেতর থেকে সমর্থন চালিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তান।

তবে এরপরেও মাসুদ আজহারকে ছাড়া উচিত নয়, এমনটাই মত প্রাক্তন সেনা প্রধানদের। এই ব্যাপারে তাঁরা অ্যাবোটাবাদে ঢুকে আলকায়দা প্রধান ওসামা বিন লাদেনকে যেভাবে মার্কিন সেনা মেরেছিল, সেই উদাহরণ টেনে এনেছেন। তাঁদের বক্তব্য, ভারতীয় বায়ুসেনা এ দিন যে প্রত্যাঘাত করেছে, তা থেকে পরিষ্কার, পাকিস্তানের ভিতরে ঢুকে মাসুদ আজহারকে ধরা বা নিকেশ করারও ক্ষমতা রয়েছে ভারতীয় সেনার। সেটাই করতে হবে।
ভারতীয় সেনার তরফে জানানো হয়েছে, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এই প্রত্যাঘাত জারি থাকবে। তাঁদের প্রধান টার্গেট মাসুদ আজহার। তাই কোনও মতেই তাঁকে ছাড়া হবে না। যতই পাক সেনা ও প্রশাসন জইশ প্রধানকে শেল্টার দিক না কেন, সেনা নিজেদের লক্ষ্যে অবিচল।

Previous articleগুজরাট সীমান্তে পাক ড্রোন গুলি করে নামাল ভারতীয় সেনাবাহিনী
Next articleমাসুদের দাদা ইব্রাহিম আজহারও খতম, নিশ্চিত করল বায়ুসেনা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here