বাগদার জনসভায় কেন্দ্র সরকারকে তুলোধোনা মমতার

0
1024

দেশের সময়: বাগদা: বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মমতা বালা ঠাকুরের হয়ে প্রচার করতে এসে কেন্দ্রীয় সরকারকে তুলোধোনা করলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাগদার হেলেঞ্চা হাই স্কুল মাঠে সোমবার জেলা তৃণমূলের নেতৃত্বে এই জনসভার আয়োজন করা হয়।

সেখানে মমতা ব্ন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়াও দলের জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, পর্যবেক্ষক নির্মল ঘোষ, প্রার্থী মমতা ঠাকুর, বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস, সুরজিত বিশ্বাস, বাগদার দলের পর্যবেক্ষক শঙ্কর আঢ‍্য,’ রতন ঘোষ, গোপাল শেঠ, মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ সহ একাধিক নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

মমতা এদিন বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিজেপি কে ভোটের পাখি বলে কটাক্ষ করে বলেন, গত লোকসভা নির্বাচনে উত্তর প্রদেশের উপর নির্ভর করে কেন্দ্রে ক্ষমতায় এসেছিল বিজেপি। এবারে সেখান অনেকটাই খালি হাতে ফিরতে হবে বিজেপিকে।

পশ্চিমবঙ্গের মতো অনেক রাজ্যেই শূন্য পাবে তারা। আর কোনভাবেই এবারে ক্ষমতায় ফেরা হবে না নরেন্দ্র মোদির দল কে। তিনি দাবি করেন, বড়মা বীণাপাণি ঠাকুরের অনুরোধে গত উপ নির্বাচনে মমতা বালা ঠাকুর কে টিকিট দেওয়া হয়েছিল।

এবারেও দেওয়া হয়েছে। বড়মাকে আমরা গত ৩০ বছর ধরে দেখভাল করে আসছি। আর ভোট পাওয়ার লোভে এখন অন্যদলগুলো ঠাকুর বাড়িতে যাতায়াত শুরু করেছে। উপেন বিশ্বাসের প্রসঙ্গ তুলে তিনি বলেন, উপেন বিশ্বাস একবার জয় লাভ করে খুব ভালো কাজ করেছেন।

তার মত একজন সৎ মানুষ কে আবার ভোটে দাঁড় করানোর চিন্তা ভাবনা রয়েছে আমাদের। তিনি অভিযোগ করেন, চতুর্থ দফার নির্বাচনে সি আর পি এফ বুথের মধ্যে ঢুকে গুলি চালিয়েছে। তাছাড়াও বুথের মধ্যে ঢুকে বিজেপিকে ভোট দেওয়ার জন্য ভোটারদের উপর জুলুম করছে।

বিজেপি দাঙ্গাবাজ বলে আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, ভোট এলে এদের রামের কথা মনে পড়ে। অথচ দেশের কোথাও একটিও রামের মন্দির গড়ে তোলেনি। আর আমরা পাড়ায় পাড়ায় মন্দির গড়েছি।

আমরা হিন্দু ধর্মকে সম্মান দিতে জানি। শুধু হিন্দু ধর্ম নয়, সব ধর্মের প্রতি আমাদের সমান শ্রদ্ধা আছে। গত ৭ বছরে এই রাজ্যে যে উন্নয়ন হয়েছে গোটা ভারতবর্ষের মধ্যে তা নজির। এদিন তিনি কন্যাশ্রী থেকে শুরু করে বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পের কথা একের পর এক তুলে ধরেন।

সমে এন আর সির নামে যে লক্ষ লক্ষ বাঙালি হিন্দু দের তাড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে কেন্দ্র তার সমালোচনা করে বলেন, অসমের অসহায় মানুষদের জন্য এই বাংলা় তাদের পাশে থাকবে। তিনি আরো অভিযোগ করেন, কংগ্রেস, সিপিএম, বিজেপি একত্রিত হয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে নানান কুৎসা গাইছে।

কিন্তু মানুষ এটা মেনে নেবে না। ভোটের বাক্সে মানুষ তার জবাব দেবেন। বাগদার সভার পর তিনি ফের হেলিকপ্টারে স্বরূপনগরের চারঘাটে আরো একটি সভা করতে সেখানে হাজির হন।

ছবি- পার্থ সারথি নন্দী/

Previous articleলাইভ : বাগদায় নির্বাচনী জনসভায় মমতা
Next articleWatch “Varanasi traditional boatmen feels threaten to their earnings” on Desher Samay YouTube

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here