নতুন বছরে “দমকল কেন্দ্র” উপহার পেল অশোকনগর

0
644

দেবকান্তি ঘোষ,অশোকনগর: – পথ চলা শুরু করলো অশোকনগর দমকল কেন্দ্র। মঙ্গলবার স্থানীয় বিশিষ্ঠ ব্যাক্তিবর্গের উপস্থিতিতে শুভ সূচনা হলো দমকল কেন্দ্রটির। উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের অগ্নিনির্বাপন ও জরুরি পরিষেবা দপ্তরের মন্ত্রী সুজিত বসু। বারাসাত লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার। অশোকনগর বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক ধীমান রায়। অশোকনগর পৌরসভার পৌরপ্রধান প্রবোধ সরকার, উপ পৌরপ্রধান সমীর দত্ত। অনুষ্ঠানে উপস্হিত হয়ে এদিন মন্ত্রী সুজিত বসু বলেন, “রাজ্যের একাধিক জায়গায় এখনও অগ্নিনির্বাপক ব্যাবস্থায় ত্রুটি রয়েছে”। “সবক্ষেত্রে অবস্হা খতিয়ে দেখে ব্যাবস্হা গ্রহন করা হবে”। “তার আগে এবিষয়ে আমরা জনগনকে সচেতন করতে চাই”। “কারন মানুষের জীবন নিয়ে খেলার অধিকার আমাদের নেই”। “কিছুদিনের মধ্যেই সব কাজ শেষ হলে সাধারণ মানুষকে আরও ভালো পরিষেবা দিতে সক্ষম হবে সরকার”। “কলকাতা-র বহু জায়গায় এমন স্হানে বাড়ি বা দোকান রয়েছে যেখানে আগুন লাগলে পৌছানোর মতো অবস্হায় থাকবে না দমকলের গাড়ি”। “এই দিকে আমরা বিশেষ নজর রাখছি”। “কারন কোন ব্যাক্তির ব্যাবসা আমরা বন্ধ করতে পারি না, কিন্ত সমস্ত নিয়ম মেনে তাকে ব্যাবসা করতে হবে”। “পাশাপাশি জেলাগুলোতে কিছুক্ষেত্রে সমস্যার সন্মুখীন হতে পারে দমকল”। “কারন অনেক জায়গায় ঘিঞ্জি বাজার থাকার দরুন সেখানে কোন অস্বাভাবিক পরিস্থিতি ঘটলে দমকল গাড়ি নিয়ে ঢুকতে পারবে না”। “তাই সবকিছু চিন্তা করে আমরা বাইকের ব্যাবস্হা করেছি”। “যেগুলো জল নিয়ে অনেক ছোট গলিতেও প্রবেশ করতে পারবে”। “সাধারণ মানুষকে পরিষেবা দিতে সবসময় তৎপর রাজ্য সরকার”। “শুধু দমকল-এর ক্ষেত্রে বলার বিষয় মানুষকে আরও সচেতন থাকতে হবে”। “আগুন লাগলে দমকল সবসময়ের জন্য প্রস্তুত, কিন্তু তার আগে যদি আমরা সচেতন থাকতে পারি তবে অনেকক্ষেত্রে দূর্ঘটনা রোধ করা সম্ভব হবে”। স্থানীয় মানুষ খুশি এই পরিষেবা পেয়ে।তাঁদের কথায় দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন সময়ে বড়সড় অগ্নিকান্ডে ব্যাপক ক্ষতির শিকার হয়েছে অশোকনগরের মানুষ। দমকেন্দ্র হওয়ায় অনেকটাই নিশ্চিন্ত হলেন তাঁরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here