দেশের সময়: শুক্রবার কাঁচরাপাড়ায় গিয়ে মুকুল রায় সম্পর্কে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিছু না কিছু বলবেন সেটা খুবই স্বাভাবিক ছিল। আর সেই ভাবনাকে মিলিয়ে দিয়ে নতুন কথা শোনালেন তৃণমূলনেত্রী। নানা ইস্যুতে বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে আক্রমণের পাশাপশি এদিন মমতা বলেন, দলের অনেকেই তাঁকে সতর্ক করেছিল। মুকুল রায়কে বিশ্বাস করতে বারণ করেছি কিন্তু মানবিকতা দেখিয়ে তাতে তিনি কান দেননি। আর তারই ফল ভুগতে হয়েছে দলকে। এর জন্য তিনি ক্ষমা চাইতে তৈরি বলেও জানালেন মমতা।

দলে এক সময়ে চাণক্য হিসেবে যাঁকে গুরুত্ব দিয়েছেন মমতা তাঁকেই সম্পর্ক খারাপ হওয়ার পরে দলের পক্ষে বুড়ো ভাম বলা হয়েছে। মমতা নিজেও বিভিন্ন সময়ে ‘গদ্দার’ বলেছেন। এদিন সেই সুরে বলেন, “আমার দোষ সব থেকে বেশি। ক্ষমা চাইতে আপত্তি নেই। আমার দল সতর্ক করেছিল। অনেক নেতাই বলেছিল, ও গদ্দার। আমি বিশ্বাস করিনি। আমি মানবিকতা দেখিয়েছি।”

এটুকুই নয়, এদিন বিজেপি নেতা মুকুল রায় থেকে সাংসদ অর্জুন সিং, মুকুল পুত্র শুভ্রাংশু সকলের সম্পর্কেই বিষোদ্গার শোনা গিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখে। কারও নাম না করলেও কথায় বার্তায় বুঝিয়ে দিয়েছেন কাদের কথা তিনি বলতে চাইছেন।

এদিন কর্মিসভায় বক্তব্যের গোড়া থেকেই মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে নাম না করে অভিযোগ করেন মমতা। তিনি বলেন, “এখানে ক্রিমিনালদের টাকা দিচ্ছে। অনেক টাকা দিচ্ছে। আমি সাত দিন সময় দিলাম যাঁরা যাঁরা বেরিয়ে যাবেন, চলে যান। দলটা শুদ্ধ হবে। আমি নতুন করে শুরু করেছি, এগিয়ে নিয়ে যাব।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.