কিউয়ির দেশে তিনে তিন, এ বার লক্ষ্য হোয়াইটওয়াশ

0
713

নিউজিল্যান্ড- ২৪৩/১০ (৪৯ ওভার)
ভারত- ২৪৫/৩ (৪৩ ওভার)
*ভারত ৭ উইকেটে জয়ী*

আকাশ ভট্টাচার্য্য, দেশের সময়: প্রত্যাশামতই নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্বিপাক্ষিক একদিনের সিরিজ জিতল ভারত। ২০০৯ -এর পর দ্বিতীয়বার কিউয়িদের হারিয়ে সিরিজ পকেটে পুরল ভারতীয় ক্রিকেট দল, তাও দুই ম্যাচ বাকি থাকতে। মাউন্ট মঙ্গনুই বে ওভালে তৃতীয় একদিনের ম্যাচে ৭ উইকেটে জয় পেল বিরাটের ভারত।
এ দিন টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন কিউয়ি অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই ভারতীয় পেসারদের সামনে নড়বড়ে শুরু করেন মার্টিন গাপটিল(১৩), কলিন মুনরো(৭)-র মত ব্যাটসম্যানরা। ২৬ রানের মধ্যে দুই কিউয়ি ওপেনারকেই সাজঘরে ফিরিয়ে দেন মহম্মদ শামি, ভুবনেশ্বর কুমার।
বে ওভালে স্লো উইকেটের ফায়দা তুলতে ভুল করেননি অধিনায়ক বিরাট কোহলি। দুই পেসার, দুই স্পিনার নিয়ে মাঠে নামেন তিনি। পঞ্চম ও ষষ্ঠ বোলিং বিকল্প হিসাবে দলে রাখেন দুই অলরাউন্ডার কেদার যাদব ও সাময়িক নির্বাসন কাটিয়ে জাতীয় দলে ফেরা হার্দিক পান্ড্য-কে। অধিনায়কের আস্থার মান রাখলেন হার্দিক। ১০ ওভার হাত ঘুরিয়ে ২ উইকেট নিলেন হার্দিক। ২৪৩ রানেই অলআউট হয়ে যায় নিউজিল্যান্ড। শামির ৩ উইকেট, ভুবির ২ উইকেট আর যুজবেন্দ্র চহালের ২ উইকেটের ‘সৌজন্যে’ ২৫০-র গন্ডি পার করতে ব্যর্থ হয় কিউয়িরা। একমাত্র রস টেলর(৯৩), টম লাথাম(৫১), কেন উইলিয়ামসন(২৮) ছাড়া কোনও কিউয়ি ব্যাটসম্যানই কুড়ি রানের গণ্ডি টপকাতে পারেননি। ৪৯ ওভারেই শেষ হয়ে যায় নিউজিল্যান্ডের ইনিংস।

২৪৪ রান তাড়া করতে নেমে স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে ব্যাটিং শুরু করেন ভারতের দুই ওপেনার রোহিত শর্মা এবং শিখর ধবন।
ব্যক্তিগত ২৮ রানের মাথায় ট্রেন্ট বোল্টের শিকার হয়ে শিখর প্যাভিলয়নে ফিরলে বিশ্বকাপের আগে ফের নিজের জাত চেনালেন রোহিত। ৬২ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেললেন হিটম্যান। চলতি নিউজিল্যান্ড সফরে নিজের শেষ ম্যাচে বিরাটও খেললেন ৬০ রানের ঝকঝকে ইনিংস। কোনও কিউয়ি বোলারই দাগ কাটতে পারেননি বিরাট-রোহিতদের সামনে। ১১৯ রানের পার্টনারশিপ করে রোহিত কিউয়ি স্পিনার স্যান্টনারের বলে এবং বোল্টের বলে বিরাট আউট হলেও চার নম্বরে নামা অম্বাতি রায়াডু(৪০*)-কে নিয়ে ম্যাচ শেষ করেন ধোনির পরিবর্তে দলে আসা দীনেশ কার্তিক(৩৮*)। ৪৩ ওভারেই ভারত জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় রান তুলে নেয়।
তিন উইকেট নিয়ে ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হয়েছেন মহম্মদ শামি। হোয়াইটওয়াশের লক্ষ্যে ভারতের পরের ম্যাচ ৩১ জানুয়ারি হ্যামিলটনে। বিরাট বিশ্রামে চলে যাওয়ায় বাকি দুই ম্যাচে দলকে নেতৃত্ব দেবেন রোহিত শর্মা। নবাগত শুভমন গিল-কে বাকি দুই নিয়মরক্ষার ম্যাচে সুযোগ দেওয়া হতে পারে। চতুর্থ ম্যাচ সকাল সাড়ে সাতটা থেকে শুরু।


ভারত: রোহিত শর্মা, শিখর ধবন, বিরাট কোহলি, অম্বাতি রায়াডু, দীনেশ কার্তিক, কেদার যাদব, হার্দিক পান্ড্য, ভুবনেশ্বর কুমার, কুলদীপ যাদব, মহম্মদ শামি, যুজবেন্দ্র চহাল।

নিউজিল্যান্ড: মার্টিন গাপটিল, কলিন মুনরো, কেন উইলিয়ামসন, রস টেলর, টম লাথাম, হেনরি নিকোলস্, মিচেল স্যান্টনার, ডাগ ব্রেসওয়েল, ইশ সোধি, ট্রেন্ট বোল্ট, লকি ফার্গুসন।

Previous articleবন্দে ভারত এক্সপ্রেস
Next articleজোট রাজনীতির অঙ্ক পাল্টে দিয়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন মৌসম বেনজির নূর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here