পার্থ সারথি নন্দী

দেশের সময়:আজ ৫ জুনবিশ্ব পরিবেশ দিবস। 

বিশ্ব পরিবেশ দিবসে গানের মাধ্যমে সবুজ বাঁচানোর আহ্বান জানালেন সংগীত শিল্পী মৌসুমী হোসেন।

পরিবেশ দিবস উপলক্ষে বার্তা দিতে শিল্পী তাঁর কন্ঠে সুরের ঝড়  তুলে সকলকে সবুজ বাঁচানো ও গাছ লাগানোর আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি গাইলেন রুদ্রশংকর এর লেখা গান  “দূষণ”  ~

লিরিক্স

দূষণ
রুদ্রশংকর

শুনলি নারে, শুনলি নারে
শুনলি না তুই মানা
দরজা খুলে দূষণ এলো
পুকুর ভর্তি পানা

দূষণ শুধু শব্দ নয়
দূষণ তোদের জলও
সব মিলিয়ে এক কথাতে
দূষণ ভূমির তলও

আটকে গেছে একটা শেকল
পরিবেশের পায়ে
নিজের হাতে নোংরা ফেলিস
এই প্রকৃতির গায়ে

আজকে দূষণ যাচ্ছে বেড়ে
আনছে নতুন রোগ
একটা গাছ রাখলে ঘরে
একটা জীবন যোগ

ঘরের দূষণ বাইরে গেছে
বাইরে রঙিন ভয়
এবার থেকে সমঝে চলিস
কাটুক বিপর্যয়।”             দেখুন দূষন গানের ভিডিও

শিল্পী মৌসুমী হোসেনের  কথায় ,এই পৃথিবীর বুকে প্রকৃতির কোলে জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত কাটিয়ে দেয় মানুষ সহ সমস্ত জীবসমাজ। এই প্রকৃতি পরম স্নেহে লালন-পালন করে তার সন্তানকে। প্রকৃতি যা দেয় তার কিছুই হয়তো ফেরত দেওয়া হয় না বরং মানুষের অত্যাচারে আরো বেশি নগ্ন হয়ে যায় প্রকৃতির সৌন্দর্য। এই বছর প্রকৃতিকে সুন্দর করে সাজিয়ে তোলার অঙ্গীকার করার মাধ্যমে পালন করুন বিশ্ব পরিবেশ দিবস।

সঙ্গীত আয়োজন ও দৃশ্যায়ন – বিকাশ সাধুখাঁ
স্টুডিও – ওয়েভ অফ মিউজিক

উল্লেখ্য, গাছ কাটার জেরে ক্রমেই বিশ্বজুড়ে বাড়ছে উষ্ণায়ন। সবুজ ধ্বংস করে গড়ে তোলা হচ্ছে বড়বড় ইমারত। আর তাতেই তাপমাত্রার পারদ চড়ছে। এবছর অতীত রেকর্ড ভেঙেছে গরম। কলকাতায় বেশ কিছুদিন ধরে ৪০ ডিগ্রির আশপাশে ছিল তাপমাত্রা। আরও করুণ পরিস্থিতি দিল্লির। গাছের সংখ্যা বৃদ্ধিই এই অবস্থা থেকে রক্ষা পাওয়ার একমাত্র পথ। আর সেই কারণেই বৃক্ষরোপণের আহ্বান জানিয়েছেন শিল্পী।

প্রসঙ্গত, এদিন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের এক্স হ্যান্ডেলে তিনি সকলকে সবুজ বাঁচানো ও গাছ লাগানোর আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি লেখেন, “সবুজের সমারোহে ভরে উঠুক ধরিত্রী। সবুজই আমাদের প্রেরণা। সবুজই আমাদের রক্ষক। আমাদের লক্ষ্য সবুজ পৃথিবী, সুন্দর পৃথিবী।”

এদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও বৃক্ষরোপণ করে ‘মায়ের নামে একটি বৃক্ষ’ কর্মসূচি চালু করলেন তিনি।‘এক পেড় মা কে নাম’ নামের ওই প্রকল্পের সূচনা করতে এদিন একটি চারা রোপণ করেন তিনি। সকাল ১০টা ৪৫ মিনিট নাগাদ বুদ্ধজয়ন্তী পার্কে ওই চারাটি রোপণ করেন মোদী (PM Modi)।

বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালন করার ক্ষেত্রে সবচেয়ে পরিচিত প্রথাটি হল বৃক্ষরোপণ। সারা বিশ্বে যেভাবে গাছ কাটা হচ্ছে তা বিশ্ব উষ্ণায়নের মাত্রা আরও বাড়াচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে তাপমাত্রাকে নিয়ন্ত্রণে আনতে গাছ রোপণের প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম, তা বার বারই বলেছেন পরিবেশবিদরা। এবার তাই প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে শুরু হল নয়া প্রকল্পের। গাছ লাগানোর এই কর্মসূচি যে ফলপ্রসূ হবে, এবিষয়ে আত্মবিশ্বাসী বহু পরিবেশবিদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here