দেশের সময় কলকাতা তীব্র দাবদাহ কাটিয়ে এখন বর্ষণ পর্ব চলছে শহর কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায়। গত সপ্তাহে থেকে প্রায় প্রতিদিনই বৃষ্টি হয়েছে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায়। ফলে অনেকটাই কমেছে তাপমাত্রার পারদ। আজ রবিবারও স্বাভাবিকের চেয়ে নীচেই রয়েছে তাপমাত্রা।

আজ  দক্ষিণবঙ্গের বেশির ভাগ অংশেই হলুদ সতর্কতা থাকছে। মুর্শিদাবাদ, নদিয়া, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিমি গতিবেগে ঝোড়ো হাওয়া ও বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। রাজ্যের বাকি জেলাগুলিতেও থাকছে ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা। তবে সেখানে ঝোড়ো হাওয়ার গতি কম থাকবে। সেক্ষেত্রে ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে বইতে পারে হাওয়া।

কিন্তু বৃষ্টির এই স্বস্তি সাময়িক ছিল। আলিপুর হাওয়া অফিস জানিয়ে দিল, স্বস্তির দিন ফুরিয়ে এসেছে। আবার গরম পড়বে। তাপমাত্রা বাড়বে বেশ খানিকটা।

আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, দক্ষিণবঙ্গের কিছু জেলায় সোমবার পর্যন্ত বৃষ্টি হতে পারে। তবে কলকাতা, হুগলি, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রামের মতো জেলাগুলিতে রবিবারের পর আর ঝড়বৃষ্টির তেমন সম্ভাবনা নেই। সেই তালিকায় আছে বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান, পূর্ব বর্ধমান, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ এবং নদিয়াও। এই জেলাগুলিতে রবিবার বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সঙ্গে বইতে পারে ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া। সোমবার থেকে আবার শুকনো আবহাওয়া থাকবে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

হাওয়া অফিস জানিয়েছে, আগামী দিন তিন দক্ষিণবঙ্গে তাপমাত্রা একই রকম থাকবে। তবে তার পর থেকে আবার চড়তে শুরু করবে পারদ। তাপমাত্রা সর্বত্রই তিন থেকে চার ডিগ্রি বাড়তে পারে।

দক্ষিণবঙ্গে আবার গরম পড়লেও উত্তরবঙ্গে আপাতত বৃষ্টি কমছে না। শনিবার পর্যন্ত দার্জিলিং, কালিম্পং, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, মালদহ, উত্তর দিনাজপুর এবং দক্ষিণ দিনাজপুরে ঝড়বৃষ্টি চলতে পারে। হাওয়ার বেগ থাকতে পারে ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার।

এপ্রিল জুড়ে দহনজ্বালায় জ্বলেছে গোটা দক্ষিণবঙ্গ। তাপমাত্রা দিনের পর দিন ছিল ৪০ ডিগ্রির বেশি। দক্ষিণের সব ক’টি জেলাতেই তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির গণ্ডি ছাড়িয়ে গিয়েছিল। কোথাও কোথাও পারদ পৌঁছে গিয়েছিল ৪৫ ডিগ্রিতেও। বৃষ্টির সাময়িক ‘স্পেল’ শেষ হলে আবার সেই দিন ফিরতে চলেছে কি না, তা নিয়ে শঙ্কায় সাধারণ মানুষ।

এদিকে দক্ষিণবঙ্গের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গের আবহাওয়ার দিকে নজর রাখলে দেখা যাবে, সেখানেও রয়েছে ঝড়বৃষ্টি ও ঝোড়ো হাওয়ার সতর্কতা। উত্তরবঙ্গে বজ্রপাতের তীব্রতা বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া কোনও কোনও জায়গায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে বয়ে যেতে পারে ঝোড়ো হাওয়া। আগামীকাল সোমবার থেকে অবশ্য আবহাওযার কিছুটি উন্নতি হতে পারে। তবে উত্তরবঙ্গের উপরের দিকে ৫ জেলা, অর্থাৎ দার্জিলিং, কালিম্পং, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার এবং আলিপুরদুয়ার জেলায় কিছু কিছু স্থানে ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া ও বজ্রবিদ্যুৎ বৃষ্টি হতে পারে। সেই জন্য ওই জেলাগুলিতে জারি থাকছে হলুদ সতর্কতা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here