অঙ্কিতা বনিক, দেশের সময়:

নতুন বছরের দ্বিতীয় দিনে সামান্য নামল সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

বছরের শুরুতে ১ জানুয়ারি হালকা ঠান্ডা,ফুরফুরে একটা ছুটির দিনে ছুটির আমেজ কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই ২ জানুয়ারি জাঁকিয়ে ঠান্ডা নেমেছে শহর জুড়ে। বেলা বাড়লেও সূর্য মামার টিকিটি মেলেনি সেভাবে।এদিন বেলা ১০ টা নাগাদ বনগাঁ অঞ্চলের তাপমাত্রা ছিল ১৯° সেলসিয়াস।বেলা ১২ টা নাগাদ তাপমাত্রা ছিল ২১°সেলসিয়াস।বেলা বাড়লেও রাস্তা জুড়ে ছিল কুয়াশার চাদর।উত্তরে শীতল হিমেল হাওয়ায় হাত,পা জমে যাওয়ার অবস্থা।

হাল্কা ঠান্ডার ফলে শিউলিদের কাছ থেকে পাওয়া যায়নি ভালো খেজুর রস। কুয়াশার মোড়া সেই শীতের সকাল, যা ছিল সেই ছোটবেলায়, দেখা হয়নি সেই সকাল। মঙ্গলবার শহরে বেলা বাড়লেও রাস্তা জুড়ে ছিল কুয়াশার হালকা চাদর।শীতের আমেজে সকাল সকাল সোয়োটার, চাদর পরে, যে যার কাজে বেড়িয়ে পড়েছেন কর্মব্যস্ত মানুষ।

বাংলাদেশের উপকূলে বঙ্গোপসাগরে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়েছে। ফলে পুবালী হাওয়ার দাপট বেড়েছে। আর কমে গিয়েছে উত্তর পশ্চিমের শীতল হাওয়ার প্রভাব। যার জন্যই দক্ষিণবঙ্গের ৫ জেলায় বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার থেকে বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। 

কলকাতায় জানুয়ারির শুরুতে কিছুটা হলেও পারদ নেমেছে। কলকাতা সহ পার্শ্ববর্তী জেলাগুলিতে এক থেকে দুই ডিগ্রি তাপমাত্রা কমেছে। সকালে ও সন্ধ্যায় হালকা শীতের আমেজ খানিকটা বেড়েছে। তবে বৃহস্পতিবার থেকে ফের বাড়বে তাপমাত্রা। যদিও কলকাতায় বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। কলকাতায় সঙ্গলবার সকালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৫.৫ ডিগ্রি। গতকাল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৩.২ ডিগ্রি। বাতাসে জলীয় বাষ্পের সর্বোচ্চ পরিমাণ ৬৬ থেকে ৯৩ শতাংশ। 

মঙ্গলবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫.‌৫ ডিগ্রি। কলকাতা–সহ বিভিন্ন জেলায় এক থেকে দুই ডিগ্রি নেমেছে তাপমাত্রা। সকালে ও সন্ধ্যায় হালকা শীতের আমেজ বজায় থাকবে। যদিও পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাবে ফের তাপমাত্রা বাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছে হাওয়া অফিস। জানা গেছে, আরব সাগরে নিম্নচাপ ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে। দক্ষিণ পূর্ব আরব সাগরে নিম্নচাপ আগামী ২৪ ঘন্টায় সুস্পষ্ট নিম্নচাপে পরিণত হবে। এর অভিমুখ উত্তর দিক। তার ফলে প্রচুর জলীয় বাষ্প ঢুকবে রাজ্যে। 

হাওয়া অফিস জানিয়েছে বৃহস্পতিবার থেকে ফের বাড়বে তাপমাত্রা। বৃহস্পতি থেকে শনিবার অবধি বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূম এবং ঝাড়গ্রামে। বজায় থাকবে ঘন কুয়াশার দাপট। উত্তরবঙ্গের পার্বত্য এলাকায় হালকা বৃষ্টির পূর্বাভাস থাকছে। সান্দাকফু–সহ দার্জিলিংয়ের উঁচু পার্বত্য এলাকায় হালকা তুষারপাতের সম্ভাবনা।

হাওয়া অফিসের খবর জানিয়েছে, আগামী দু-তিন দিন ঘন কুয়াশার দাপট থাকবে পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, নদীয়াতে। খুব সকালে হালকা থেকে মাঝারি কুয়াশা দেখা যাবে। কুয়াশা কেটে গেলে মূলত পরিষ্কার আকাশের সম্ভাবনা। 

অন্যদিকে,  উত্তরবঙ্গের পার্বত্য এলাকায় হালকা বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। হালকা তুষারপাত হতে পারে সান্দাকফু সহ দার্জিলিংয়ের উঁচু পার্বত্য এলাকায়। বুধবার ও বৃহস্পতিবার তুষারপাতের সম্ভাবনা সব থেকে বেশি। উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে মূলত শুকনো আবহাওয়া সহ তাপমাত্রা প্রায় একই রকম থাকবে। হালকা থেকে মাঝারি কুয়াশা থাকবে দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার এবং উত্তর দিনাজপুর জেলাতে। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here