দেশের সময়: শুরু হয়ে গেছে দুর্গাপুজোর ফাইনাল কাউন্টডাউন। শারোদৎসবের আনন্দে মাতবে গোটা বাংলা। দিকে দিকে থিমের লড়াইতে নামবে পুজো কমিটিগুলি। অভিনব থিমের মধ্যে দিয়ে বিভিন্ন ভাবনাকে তুলে ধরার চেষ্টা করবেন পুজো উদ্যোক্তারা।

কোথায় কোনও নির্দিষ্ট ভবনের আদলে দেখা যাবে মণ্ডপ, আবার কোথাও হয়ত থিমের মধ্যে দিয়ে দেওয়া হবে কোনও বিশেষ সামাজিক বার্তা। আবার কোনও জায়গায় হয়ত দুর্গাপুজোর মধ্যে দিয়ে কোনও বরণীয় ব্যক্তিত্বকে শ্রদ্ধা জানানোর উদ্যোগ দেখা যাবে কমিটির আয়োজনে। আর তাই নিয়েই একে অপরকে টেক্কা দেওয়ার লড়াই চলবে কমিটিগুলির মধ্যে।

সেক্ষেত্রে মণ্ডপ, প্রতিমা তথা ভাবনায় সেরাদের বেছে নিতে প্রতিবারের মতো এবারেও  শারদ সম্মানের আয়োজন করছে বাংলার সরকার সহ বহু সংস্থা ৷

দুর্গাপুজো নিয়ে নানা কাহিনি বর্ণিত থাকলেও শরৎকালের রামচন্দ্র এই পুজোকে অকালবোধন রূপে চিহ্নিত করা হয়। এখন তো শহর বা শহরতলির বিভিন্ন জায়গায় চলে থিমের রমরমা। আর আপনার যদি কলকাতা শহরের এই থিমপুজো ভালো না লাগে তাহলে বেড়িয়ে আসতে পারেন বনগাঁ শহরের বনেদি বাড়ির পুজোগুলোতে (Bonedi Bari Durga Puja) । যেখানে থিম না থাকলেও সাবেকিয়ানার স্বাদ এখনও বর্তমান। ষষ্ঠীতে আমন্ত্রণ ও অধিবাস পর্ব দিয়ে শুরু করে সপ্তমীতে নবপত্রিকা স্নান, অষ্টমীতে কুমারীপুজো, সন্ধিপুজো এবং নবমীতে বিভিন্ন আচার-অনুষ্ঠান পালনের মাধ্যমে দশমীতে সিঁদুর খেলার সব কিছুই সাবেকিয়ানায় মতে দেখতে পারবেন।

তাই  এবার বনেদি বাড়ির পুজো গুলিকে নিয়ে এই প্রথম  শারদ সম্মানের আয়োজন করেছে উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁর একটি আভিজাত্যপূর্ণ গহনার শোরুম নিউসিংহ জুয়েলার্স ৷ 

সেক্ষেত্রে বনগাঁর বনেদি বাড়ির পুজোগুলির জন্য যে বিভাগগুলি থাকছে সেগুলি হল, সেরা প্রতিমা, সেরা ঠাকুরদালান , সেরা পরিবেশবান্ধব, সেরা সাবেকি, সেরা সমাজ সচেতনতা, সেরা অন্য ভাবনা, বিশেষ পুরস্কার, এর মতো বিভাগ।

দেশের সময়-এর তরফে শারদ সম্মানের ফ্লেক্স সরবরাহ করা হবে, সেগুলি পুজো শেষ না হওয়া পর্যন্ত মণ্ডপে প্রদর্শন করতে হবে পুজো কমিটিগুলিকে। এছাড়াও বিষয়টি নিয়ে আরও বিষদে জানতে সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টার মধ্যে ফোন করা যেতে পারে +৯১ ৯৪৩৪১৪৪৭৩৭/৯৭৩৩৭৭৫৯৪০ নম্বরে। তবে এই প্রতিযোগিতায় কোনও প্রবেশমূল্য নেই।

Previous articlePM Narendra Modiদেবীপক্ষের শুরুতেই ফের গান লিখলেন মোদী! বললেন ‘আসুন উৎসবের ছন্দে মাতুন’…
Next articleDurga Puja: রাধা গোবিন্দের সঙ্গে মা দুর্গার আরাধনা, ৪০০ বছরেরও বেশি পুরনো ‘বাবুর বাড়ি’-র এই পুজো

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here