দেশের সময় ওযেবডেস্ক: এবছর ১৬৭তম বর্ষ মা ভবতারিণীর দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের পুজোর। এবার দেবী সাজবেন কথামৃতে বর্ণিত সাবেক গয়নায়। সাবেক ধাঁচে পরানো হবে বেনারসিও বলে জানিয়েছেন মন্দির কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার ভোর পাঁচটায় খোলা হয়েছে মন্দিরের দরজা। দুপুর সাড়ে ১২টায় বন্ধ হয়ে যাবে। ফের খুলবে দুপুর তিনটেয়। তারপর থেকে সারা রাত খোলা থাকবে মন্দির।

এদিন সকালে মঙ্গল আরতি দিয়ে শুরু হয়েছে ভবতারিণীর পুজো। দুপুরে পাঁচ রকম মাছ, পাঁচ রকম ভাজা, পাঁচ রকমের মিষ্টি দিয়ে অন্ন ভোগ দেওয়া হবে। রাতে তিন প্রহরে হবে দেবীর পুজো। চলবে স্তোত্রপাঠ। পুজো উপলক্ষে মন্দির চত্বর কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হচ্ছে। নজরদারির জন্য থাকছে ৪২টি সিসি ক্যামেরা। এ ছাড়াও রাজ্য প্রশাসন ও ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের তরফে থাকছে বিশাল পুলিশ বাহিনী, বম্ব স্কোয়াড।

দর্শনার্থীরা সকাল থেকেই কোভিড বিধি মেনে পুজো দিতে পারবেন। তবে মন্দিরে প্রবেশ করতে হলে স্যানিটাইজেশন টানেল পেরিয়ে দেহের তাপমাত্রা পরীক্ষা করতে হবে। তবেই মিলবে এন্ট্রি। মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। পুজো দেওয়ার সময় নির্দিষ্ট দূরত্ব-বিধি অনুসরণ করেই লাইনে দাঁড়াতে পারবেন ভক্তরা। তবে মন্দির চত্বরে বসে পুজো দেখার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না। 

দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের অছি ও সম্পাদক কুশল চৌধুরী জানিয়েছেন, ‘চিরাচরিত প্রথা মেনেই পুজোর আয়োজন করা হয়েছে। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে বসে পুজো দেখার সুযোগ থাকছে না। এ জন্য আমরা দুঃখিত। তবে টিভিতে সরাসরি সম্প্রচার দেখা যাবে।’ এবছরও দর্শনার্থীদের প্রসাদ বিতরণ বন্ধ থাকছে। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here