হেলমেট না থাকার জন্য ২০১৮ সালে ৪৩ হাজারের বেশি মৃত্যু বাইক আরোহীর, জানাল সরকার

0
744

দেশের সময় ওয়েবডেস্কঃ ২০১৭ সালে হেলমেট ছাড়া গাড়ি চালানোর জন্য সারা দেশে মারা গিয়েছিলেন ৩৫ হাজার ৯৭৫ জন। পরের বছর হেলমেটবিহীন বাইক আরোহীর মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে ২১ শতাংশ। ২০১৮ সালে হেলমেট ছাড়া বাইক চালাতে গিয়ে দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছেন ৪৩ হাজার ৬০০ জন। বিভিন্ন রাজ্য সরকারের দেওয়া তথ্যে একথা জানা গিয়েছে।

এর মধ্যে গুজরাত ও ঝাড়খণ্ডে বাইক আরোহীদের হেলমেট পরা বাধ্যতামূলক থাকছে না। গুজরাতে গত বছর মারা গিয়েছিলেন ৯৫৮ জন বাইক আরোহী। তাঁদের মধ্যে ৫৬০ জন হেলমেট না পরেই বাইক চালাচ্ছিলেন।

ঝাড়খণ্ডে গত বছর ৭৯০ জন বাইক আরোহীর মৃত্যু হয়েছিল। তাঁদের মধ্যে হেলমেটবিহীন বাইক আরোহী ছিলেন ৪৫০ জন। কিন্তু গত সপ্তাহে দুই রাজ্য সরকার ঘোষণা করেছে, পুলিশ আর হেলমেটবিহীন বাইক আরোহীদের কেস দেবে না।

গত বছর উত্তরপ্রদেশে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক হেলমেটবিহীন বাইক আরোহীর মৃত্যু হয়েছে। মৃতের সংখ্যা ৬০২০। মহারাষ্ট্র আছে তার পরেই। মৃতের সংখ্যা ৫২৩২। তামিলনাড়ুতে হেলমেট ছাড়া বাইক চালাতে গিয়ে মারা গিয়েছিলেন ৫০৪৮ জন।

২০১৮ সালে সিট বেল্ট না বাঁধার জন্য চার চাকার গাড়ির ২৪ হাজার ৪০০ আরোহী মারা গিয়েছিলেন। তার আগের বছর মারা গিয়েছিলেন ২৮ হাজার ৯০০। মোটর ভেহিকেলস অ্যাক্ট অনুযায়ী চার চাকার গাড়ির আরোহীদের সিট বেল্ট বাঁধা বাধ্যতামূলক। এই আইন ভাঙলে জরিমানা হয় ১ হাজার টাকা।

গত বছরফ সিটবেল্ট না বাঁধার জন্য মারা গিয়েছিলেন চার চাকার ৯৩৫০ জন ড্রাইভার। ওই সময় সিটবেল্ট না বাঁধা যাত্রীদের মৃত্যুর হার ছিল বেশি। মৃতের সংখ্যা ছিল ১৫ হাজার ১০০।

Previous articleমোদীর জন্মদিনে দিল্লি যাচ্ছেন মমতা, বৈঠকের সম্ভাবনা বুধবার
Next articleভালোবাসা : বিভাস রায়চৌধুরী

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here