দেশের সময় ,বনগাঁ: হাইকোর্টের নির্দেশ মেনে বনগাঁ পৌরসভার প্রধানের বিরুদ্ধে আনা অনাস্থা প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে পরবর্তী প্রক্রিয়া শুরু করার জন্য উদ্যোগ নিলেন বিরোধী কাউন্সিলররা। শুক্রবার তাদের মধ্যে তিন কাউন্সিলর মহকুমা শাসকের কাছে চিঠি দিয়ে আস্থা ভোট আয়োজন করার আবেদন জানালেন।

সেই চিঠিতে তারা ১৬ ই জুলাই মঙ্গলবার দুপুর তিনটেয় পুরসভার মিটিং হলে এই প্রক্রিয়া শুরু করার আবেদন জানিয়েছেন। এই চিঠির কপি জেলাশাসক সহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তর এবং পুরসভার কাউন্সিলর দের কাছে পাঠানো হয়েছে বলে ওই তিন কাউন্সিলের দাবি। এদিন বিকেলে হিমাদ্রি মন্ডল, মনোতোষ নাথ এবং দীপ্তেন্দু বিকাশ বৈরাগীর সই করা চিঠি মহকুমা শাসকের কাছে জমা পড়ে।

উল্লেখ্য, ১৪ জুন পুরসভার প্রধান শঙ্কর আঢ‍্যর বিরুদ্ধে অনাস্থা এনে মহকুমা শাসকের কাছে অনাস্থা প্রস্তাব জমা দেন বনগাঁ পৌরসভার কয়েকজন কাউন্সিলর। তার প্রেক্ষিতে দলীয়ভাবে কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় এই কাউন্সিলররা বিধায়কের হাত ধরে বিজেপিতে যোগদান করেন। এরপরে কেটে গেছে বেশ কয়েকটি দিন। এরপর দিন কয়েক আগে এই কাউন্সিলররা কলকাতা হাইকোর্টে একটি মামলা করেন।

সেই মামলার প্রেক্ষিতে বিচারক সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায় আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে অনাস্থা প্রস্তাব সংক্রান্ত প্রক্রিয়া শুরু করার পাশাপাশি ৭ দিনের মধ্যে নতুন পুর বোর্ড গঠন করার নির্দেশ জারি করেন বলে জানান কাউন্সিলর মনতোষ নাথ। সেই নির্দেশ মোতাবেক এদিন তারা মহকুমা শাসকের কাছে আস্থা ভোট আয়োজন করার আবেদন জানান।

আবেদনকারী দের পক্ষে আরেক কাউন্সিলর দিব্যেন্দু বিকাশ বৈরাগী বলেন, অনাস্থা প্রস্তাব জমা পড়ার পর পুর প্রধানের পক্ষে ১৫ দিন এবং তারপর উপ পৌর প্রধান এর পক্ষে ৭ দিন সময়সীমা পার হয়ে গেলেও এ ব্যাপারে কোন প্রক্রিয়া শুরু করা হয়নি। ফলে বাধ্য হয়ে আমরা আদালতের দ্বারস্থ হই। এরপর আদালতের নির্দেশেই পরবর্তী প্রক্রিয়া শুরু করার জন্য আমরা উদ্যোগী হয়েছি।

বিজেপি নেতা দেবদাস মন্ডল বলেন, পুরপ্রধান এবং উপপ্রধান এর খামখেয়ালীপনার কারণে আমাদের কাউন্সিলররা আদালতের দ্বারস্থ হতে বাধ্য হয়েছেন। এখন আদালতের নির্দেশেই পরবর্তী পদক্ষেপ করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.