দেশের সময় ওয়েবডেস্কঃ লকডাউন অমান্য করায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩০২ জনকে গ্রেফতার করেছে কলকাতা পুলিশ। সোমবার বিকেল ৫টার পর থেকে রাত পর্যন্ত ২৫৫ জনকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। সোমবার সকালেই প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন লকডাউনকে অনেকেই অমান্য করছেন। গুরুত্ব দিচ্ছেন না। বিভিন্ন রাজ্যের প্রশাসনের কাছে এর জন্য প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলেছিলেন নরেন্দ্র মোদী। কেবল প্রধানমন্ত্রী নন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও আমজনতার কাছে ঘরে থাকার আর্জি জানিয়েছিলেন।

তবে যে যাই বলুন না কেন একদল মানুষ মঙ্গলবারও লকডাউন ভেঙেছিলেন। আর তার জেরেই শহর কলকাতায় এখনও পর্যন্ত গ্রেফতারির সংখ্যা ১৩০০ পেরিয়েছে। ইতিমধ্যেই বাংলায় লক ডাউনের সময়সীমা বেড়েছে। আগে ২৭ এপ্রিল পর্যন্ত রাজ্যে লকডাউনের কথা ঘোষণা করেছিলেন মুখ্য সচিব রাজীব সিনহা। তবে পরে সেই মেয়াদ বাড়িয়ে ৩১ মার্চ পর্যন্ত করা হয়েছে। এর পাশাপাশি মঙ্গলবার মধ্যরাত অর্থাৎ রাত ১২টার পর থেকে লকডাউন হতে চলেছে সারা দেশে। তিন সপ্তাহ তথা ২১ দিনের জন্য এই লকডাউন জারি থাকবে। প্রধানমন্ত্রী এদিন সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিয়ে বলেছেন, “২১ দিন নিজেদের সামলে রাখতে না পারলে ২১ বছর ধরে ভুগতে হবে।“ এছাড়াও তিনি বলেছেন, করোনা-র অর্থ হল “কোই রোড পর না নিকলে।“
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ক্রমশই বাড়ছে ভারতে। আক্রান্তের সংখ্যা ৫০০ পেরিয়েছে। এখন দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫১৯। মৃত্যু হয়েছে মোট ১২ জনের। যাঁদের মধ্যে রয়েছেন ২ জন বিদেশি নাগরিক। এই ১২ জনের মধ্যে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে মুম্বইতে। সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছে মহারাষ্ট্র এবং কেরলে। সংক্রমণ রুখতে তাই তৎপর প্রশাসন। সারা দেশ জুড়েই শুরু হতে চলেছে লকডাউন। আর সেই নিয়ম ভাঙলে কড়া শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে নিয়ম ভঙ্গকারীদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.