দেশের সময় ওয়েবডেস্কঃ থানার বাইরে চেয়ারে বসে রয়েছেন এক পুলিশকর্মী। মুখে বাঁধা মাস্ক। পাশেই একটা টেবিলের উপর বসে রয়েছে একটি বাঁদর। ভাল করে দেখলে বোঝা যাবে বাঁদরটির হাত নেই। আর তাই এই পুলিশকর্মী নিজে হাতেই খোসা ছাড়িয়ে কলা খাওয়াচ্ছেন বাঁদরটিকে। ধৈর্য ধরে বাঁদরটিও কলা খাওয়াতেই মন দিয়েছে। কোনওরকম দুষ্টুমির লক্ষণ নেই তার মধ্যে। যেন বুঝতে পেরেছে দেশের এই দুর্দিনে এই পুলিশকর্মীই ওর জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। জানা গিয়েছে, এই ঘটনা উত্তরপ্রদেশের।

করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। আগামী ৩ মে পর্যন্ত এই লকডাউন থাকবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। জরুরিভিত্তিক পরিষেবা ছাড়া সবকিছুই প্রায় বন্ধ রয়েছে। সংক্রমণ যাতে না ছড়ায় সে জন্যই জারি হয়েছে এই লকডাউন। এই অবস্থায় খাবার নিয়ে খুবই সমস্যায় পড়েছে রাস্তায় ঘুরে বেড়ানো জীবজন্তুরা। অন্যান্য সময় অবশ্য অনেকেই রাস্তার কুকুর-বেড়াল কিঙ্গা গুরকে খাওয়ান। কিংবা রাস্তাঘাটে কিছু পড়ে থাকলেও খেতে পারে ওরা। তবে এখন সে গুড়ে বালি। গৃহবন্দি গোটা দেশ। দেখুন ভিডিও:

এইসব অবলা জীবদের সাহায্যের জন্য অবশ্য ইতিমধ্যেই এগিয়ে এসেছেন অনেকে। কোথাও পুলিশকর্মীরা, কোথাও বা কোনও সংস্থার ভলান্টিয়াররা আবার কোথাও নির্দিষ্ট কোনও ব্যক্তি—-এই অবলাদের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছেন অনেকেই। সেই দলেই এবার নাম জুড়ল এই পুলিশকর্মীর। হাতকাটা ওই বাঁদরটিকে কলা খাওয়ানোর সময় থানার মধ্যে থেকেই কেউ এই ভিডিও তুলে ছড়িয়ে দেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

টুইটারে ইতিমধ্যেই ভাইরাল এই ভিডিও। পুলিশকর্মীর উদার মনোভাবের প্রশংসা করেছেন নেটিজেনরা। এর মধ্যেই ২ হাজারেরও বেশিবার রিটুইট করা হয়েছে এই ভিডিও। ২৮ হাজারেরও বেশি মানুষ দেখে ফেলেছেন পুলিশকর্মীর বাঁদরকে কলা খাওয়ানোর ভিডিও। দেশের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এবং আইনশৃঙ্খলা সুষ্ঠু ভাবে বজায় রাখতে এখন এমনিতেই অনেক অতিরিক্ত দায়িত্ব নিতে হচ্ছে পুলিশকর্মীদের। তার মধ্যেও যে এই পুলিশকর্মী এই অভুক্ত বাঁদরটিকে খাবার খাইয়েছেন সে জন্য তাঁকে কুর্নিশ জানিয়েছেন সকলেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here