দেশের সময় ওয়েবডেস্কঃ বৃহস্পতিবার থেকেই শুরু হচ্ছে চলতি বছরের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। এবার প্রশ্নফাঁস রুখতে একাধিক পদক্ষেপ নিল উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। প্রশ্নপত্রের প্যাকেটে বারকোড থাকবে বলে জানালেন সংসদ সভাপতি মহুয়া দাস।

পাশাপাশি, কোনও অপ্রীতিকর ঘটনার পিছনে স্কুলের গাফিলতি প্রমাণিত হলে অনুমোদন বাতিল করা হবে বলেও জানান তিনি।
বৃহস্পতিবার সকাল দশটা থেকে শুরু উচ্চমাধ্যমিকের প্রথমভাষার পরীক্ষা। তার আগে বুধবার দুপুরে সাংবাদিক বৈঠক করলেন উচ্চমাধ্যমিক সংসদ সভাপতি মহুয়া দাস।

জানালেন গতবছরের তুলনায় এবার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে ৫ হাজার। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে এবছর আরও কড়া সংসদ। এই প্রথম ২৫০টি কেন্দ্রে থাকছে মেটাল ডিটেক্টর। প্রশ্নপত্রের প্যাকেটে থাকবে বারকোড। কোনও পরীক্ষার্থীর কাছে মোবাইল নেই এবিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার পরই প্রশ্নপত্র দেওয়া হবে তাদের।

কারও কাছ থেকে টুকলি পাওয়া গেলে সঙ্গে সঙ্গে বাতিল করা হবে তার খাতা। প্রয়োজনে বাতিল হতে পারে রেজিস্ট্রেশনও। এছাড়াও শিক্ষকদের উপর হামলা, পরীক্ষা কেন্দ্রে ভাঙচুরের অভিযোগ উঠলেও পরীক্ষার্থীকে আরএ করা হবে। গোটা ঘটনায় স্কুলের গাফিলতি প্রমাণিত হলে বাতিল করা হতে পারে অনুমোদনও।

এছাড়াও মধ্যশিক্ষা পর্ষদের পথে হেঁটে উচ্চমাধ্যমিকের ক্ষেত্রেও স্পর্শকাতর জেলাগুলিতে পরীক্ষা শুরুর আধ ঘণ্টা আগে থেকে ইন্টারনেট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। নির্বিঘ্নে পরীক্ষা পরিচালনা করতেই সংসদের এই সিদ্ধান্ত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here