দেশের সময় ওয়েবডেস্কঃ খুব দ্রুত না হলেও রাজ্যে ক্রমেই বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বর্তমানে করোনা আক্রান্ত হয়ে ১৬২ জন চিকিৎসাধীন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২২ জনের শরীরে মিলেছে মারণ ভাইরাস। তবে, এই সময়ের মধ্যে নতুন করে মৃত্যু হয়নি কারও। শুক্রবার নবান্নে এই পরিসংখ্যান তুলে ধরেছেন রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা।

তবে, সংখ্যা যাই থাক, পরিস্থিতি যে মোটেই স্বাভাবিকের ধারেকাছে নয়, তা এদিন স্পষ্ট করে দিয়েছেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সাংবাদিক বৈঠকে তিনি স্পষ্টতই বলেছেন, এই পরিস্থিতিতেই বিষয়টি রুখতে না পারলে ছড়িয়ে পড়বে গোষ্ঠী সংক্রমণ। বিগত দিনগুলির তুলনায় এদিন সাধারণ মানুষের একটা বড় অংশের প্রতি কিছুটা ক্ষুব্ধই ছিলেন তিনি। বাজারে ভিড় করা নিয়েও তিনি ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন।

মুখ্যসচিব আগেই জানিয়েছিলেন, রাজ্য সরকারের তরফে প্রায় ২ লক্ষ ২৩ হাজার মাস্ক দেওয়া হয়েছে। পিপিই দেওয়া হয়েছে সাড়ে তিন লক্ষ। সরকারি কোয়ারানটিনে রয়েছেন চার হাজারের মতো মানুষ।

তবে, মানুষের স্বার্থেই এবার যে পরিস্থিতি কড়া হাতে মোকাবিলা করতে হবে, তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। নবান্ন সভাঘরে জেলাশাসক, পুলিশ সুপারদের সঙ্গে বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী স্পষ্ট বলেন, ‘বাজারে ভিড় করা চলবে না। প্রয়োজনে সশস্ত্র পুলিশ নামাতে হবে।’ তবে, রাজ্যপাল ও বিজেপি নেতাদের নাম না করে এদিনও রাজনীতি করার অভিযোগ করেছেন তিনি। আধা সেনার বদলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে তিনি যে পুলিশের উপরই ভরসা রাখছেন, এদিন আরও একবার তাও স্পষ্ট করে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেন, ‘পুলিশ ভালো কাজ করছে, রাজনীতি করার জন্য কেউ আধা সেনা চাইছে।’ সেইসঙ্গেও পুলিশকে তিনি বলেছেন, রেড জোনে কাউকে ঢুকতে বেরোতে দেওয়া হবে না, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here