দেশের সময় ওয়েবডেস্কঃ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বর্ষীয়ান বাম নেতা শ্যামল চক্রবর্তী। শুক্রবার দুপুরে সেই খবর ফেসবুকে পোস্ট করে জানালেন মেয়ে ঊষসী চক্রবর্তী। বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন শ্যামল চক্রবর্তী। ফেসবুক পোস্টে ঊষসী তাঁর বাবাকে নিয়ে উদ্বেগের কথা প্রকাশ করেছেন। স্বাভাবিক কারণে এই বামনেতার অসুস্থতা নিয়ে উদ্বেগে রয়েছে রাজনৈতিক মহল।
বৃহস্পতিবারই একটি দীর্ঘ পোস্ট করে মেয়ে ঊষসী জানিয়েছিলেন ফুসফুসে সংক্রমণ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন শ্যামল চক্রবর্তী।

তখনও জানা যায়নি শ্যামল চক্রবর্তী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন কিনা। ঊষসী সেই সময়ে ফেসবুকে লিখেছিলেন, ‘অনেকেই সকাল থেকে বার বার ফোন করে খোঁজ নিচ্ছেন ধরতে পারিনি তাই জানাচ্ছি আমার বাবা শ্রী শ্যামল চক্রবর্তী কাল থেকে নর্থ সিটি হাসপাতালে ভর্তি।

কোভিড কিনা জানা যায়নি, কারণ টেস্ট কাল হবে। তবে যেহেতু ওঁর ফুসফুসের সংক্রমণ রয়েছে (যেটা ওঁর এর আগে অনেক বারই হয়েছে) তাই বর্তমান চিকিৎসা প্রটোকল অনুসারে ওঁকে শ্বাসকষ্ট জনিত রোগে ভোগা অন্য রোগীদের সাথে একই ফ্লোরে রাখা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে কোভিড পেশেন্ট ও আছেন। যদিও বাবার কেবিন আলাদা তবুও যেহেতু একই মেডিকেল ও নার্সিং স্টাফ ওঁর দেখাশোনা করছেন তাই ওঁর হাসপাতাল বাহিত কোভিড হওয়ার সম্ভবনা বাতিল করা যাচ্ছে না।

যাই হোক, এ নিয়ে অভিযোগ করে তো লাভ নেই। বর্তমান সময়ে লোকে যখন অক্সিজেনের অভাবে স্রেফ মরে যাচ্ছে সেখানে উনি অন্তত একটা আলাদা কেবিন পেয়েছেন এটাই যথেষ্ট।’‌ ঊষসী কাতর আর্জি জানিয়েছেন, ‘বাবা কোভিড আক্রান্ত। উপরন্তু বার্ধক্যজনিত সমস্যা তো রয়েইছে, তাই এইসময়ে তাঁকে দেখাশোনা করার জন্য একটা লোক চাই।’‌ 

জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে উল্টোডাঙার একটি নার্সিংহোমে বুধবার দুপুরে ভর্তি হয়েছিলেন সিপিএমের প্রবীণ নেতা শ্যামল চক্রবর্তী। গত কয়েক দিন ধরে জ্বর আসছিল তাঁর, প্রস্রাব অনিয়মিত হচ্ছিল। সিওপিডি থাকার কারণে শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে আগেও ওই নার্সিংহোমে চিকিৎসাধীন থেকেছেন তিনি। সেখানে তাঁর নিউমোনিয়া ধরা পড়ে। এর পর তাঁকে কোভিড টেস্টও করানো হয়। প্রাক্তন পরিবহণ মন্ত্রী তথা সিটু নেতা শ্যামল চক্রবর্তীর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

শুক্রবার তাঁকে বাসপাসের ধারে এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আপাতত স্থিতিশীল রয়েছেন তিনি। সূত্রের খবর, তাঁর নিউমোনিয়ার প্রবণতাও রয়েছে।
প্রসঙ্গত, বাম শিবিরের একের পর এক নেতা করোনায় সংক্রমিত হচ্ছেন। শ্রমিক নেতা তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী অনাদি সাহু ও চিকিৎসক নেতা ফুয়াদ হালিম কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন।

অনাদি সাহুর কোভিড পজিটিভ দিন কয়েক আগেই ধরা পড়ে। এর আগে বাম শিবিরের নেতা শিলিগুড়ির প্রাক্তন মেয়র তথা বিধায়ক অশোক ভট্টাচার্যও কোভিডে আক্রান্ত হয়েছিলেন। তবে করোনা জয় করে বাড়িও ফিরেছেন প্রাক্তন পুরমন্ত্রী। এইমুহূর্তে কলকাতার তিন বাম নেতার প্রায় একসঙ্গে অসুস্থ হওয়ার ঘটনায় উৎকণ্ঠায় আলিমুদ্দিন স্ট্রিট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.