দেশের সময় ওয়েব ডেস্কঃ একুশ সাল শেষ হওয়ার আগেই গোটা দেশে টিকাকরণ প্রক্রিয়া শেষ করে ফেলা হবে বলে দাবি করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর। শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠকের পরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ঘোষণা করেন, চলতি বছর ডিসেম্বরের মধ্যেই দেশের সকলকে করোনার টিকা দেওয়া হবে। এদিন টিকার বন্টন নিয়ে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর বিরোধিতার জবাব দিতে গিয়ে জাভড়েকর বলেন, “টিকাকরণের পদ্ধতি নিয়ে রাহুলজি যদি এতটাই চিন্তিত তাহলে কংগ্রেস শাসিত রাজ্যগুলিতে সঠিক টিকাকরণ হচ্ছে কিনা দেখুন। সেদিকে মন দিন।“

কেন্দ্রীয় সরকার আগেই ঘোষণা করেছিল, জুলাই থেকে অগস্টের মধ্যে দেশে আরও আট রকম ভ্যাকসিন চলে আসার কথা রয়েছে। দেশি ছাড়াও একাধিক বিদেশি ভ্যাকসিনেও ছাড়পত্র দেওয়া হবে। টিকার ডোজের পরিমাণও বাড়বে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বক্তব্য, ডিসেম্বরের মধ্যে ২০০ কোটির বেশি টিকার ডোজ তৈরি হয়ে যাবে। ফলে দেশের একটা বড় অংশের মানুষকে টিকার দুটো ডোজ দেওয়া সম্ভব হবে।


শুক্রবার ভার্চুয়াল প্রেস কনফারেন্সে ভ্যাকসিন নীতি নিয়ে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে ফের তোপ দাগেন রাহুল। তাঁর বক্তব্য ছিল, ‘কোভিডের ফার্স্ট ওয়েভ আগে থেকে আন্দাজ করা যায়নি। কিন্তু সেকেন্ড ওয়েভের জন্য পুরোপুরি নরেন্দ্র মোদী দায়ী। কংগ্রেস নেতার আরও অভিযোগ, দেশের ১৩০ কোটি মানুষের মধ্যে মাত্র ৩ শতাংশ ভ্যাকসিন পেয়েছে। বাকিরা এখনও অপেক্ষায়। প্রধানমন্ত্রীকে ‘ইভেন্ট ম্যানেজার’ বলেও উল্লেখ করে রাহুল।

কেন্দ্রের ভ্যাকসিন নীতি নিয়ে রাহুল গান্ধীর সমালোচনার জবাব দিতে গিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জাভড়েকর বলেন, কংগ্রেস শাসিত রাজ্যগুলিতে সঠিক পদ্ধতিতে টিকাকরণ হচ্ছে না। ১৮ থেকে ৪৪ বছর বয়সীদের টিকাকরণের কোনও সঠিক পরিকল্পনাই নেই। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর আরও বক্তব্য, কংগ্রেস আগে ভ্যাকসিনে বিশ্বাস করত না। অনেকে বিজেপি ভ্যাকসিনও বলেছিলেন। মোদী সরকারের সমালোচনা করার জন্যই এমন অপপ্রচার করে মানুষের মনে মিথ্যা ভয় ও আতঙ্ক তৈরির চেষ্টা চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here